পুরুষদের যে অভ্যাসগুলো কখনোই বদলায় না

Feature Image

মানুষ অভ্যাসের দাস। চাইলেই নাকি যে কোনো অভ্যাস বদলানো যায়। কিন্তু পুরুষদের কিছু অভ্যাস আছে, যেগুলো কখনোই বদলানো যায় না। নারীরা হরহামেশাই এগুলো বদলানোর চেষ্টা করে শেষে রণক্ষান্ত দিয়ে মেনেই নেন, বান্দা মানুষ হবে না। তবে এগুলো স্রেফ অভ্যাস, বদভ্যাস ঠিক বলা যায় না। আর এই অভ্যাসগুলো চলে আসে স্বভাবের কারণে। তবে পুরুষদের এই অভ্যাসগুলো জেনে রাখা ভালো। এতে পুরুষরাও বুঝতে পারবেন নারীরা কেন এগুলো বদলাতে চান আর নারীরাও বুঝতে পারবেন কেন এই অভ্যাসগুলো পুরুষরা ছাড়তে পারেন না।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার অনলাইন সংস্করণে পুরুষদের এমন কিছু অভ্যাসের কথা তুলে ধরা হয়েছে।সেতা স্বাধীনবাংলা ২৪ ডট এর পাঠক দের জন্য তুলে ধরা হলো।

১. না থাক, আজ না

পুরুষরা সাধারণত বাসায় থাকলে কিছুটা আলসে প্রকৃতির হয়ে যান। তাই ছুটির দিনে বেড়াতে যাওয়ার কথা তুললে মুখটা শুকিয়ে যায় তাঁদের। আগের পরিকল্পনা করে রাখা কোনো কাজ করতেও শরীর-মন কোনোটাই ঠিক সায় দেয় না। না, আজ করতে ইচ্ছা করছে না। পরে করব। এখনই তো লাগছে না। এমন হাজারটা অজুহাত তৈরি থাকে তাঁদের কাছে। অথচ তিনি চাইলেই করতে পারেন। এই আলসেমি প্রায় সব পুরুষের মধ্যেই দেখা যায়।

২. সঙ্গীর কাজে সাহায্য না করা

কিছু কিছু পুরুষ আছেন, যাঁরা বাসার কাজে সাহায্য করতে লজ্জা পান। তাঁদের ধারণা, বাসার কাজ করাটা তাঁদের ঠিক শোভা পায় না। লোকে জানলে হাসবে! এই ভেবে তাঁরা বাসার কোনো কাজকে সাহায্য করে না। তাঁদের সঙ্গীরাও এই বিষয়ে অভ্যস্ত। যদি ভুলেও একদিন খাওয়ার পর প্লেট ধুয়ে রাখলেন, তাতেও মনে থাকে ভয়। এই বুঝি এখন থেকে প্রতিদিন প্লেট ধুয়ে রাখার ফরমান জারি হয়ে যাবে। সেই ভয়ে বা আতঙ্কে তাঁরা কখনো খাওয়ার পর নিজের প্লেট ধুয়ে রাখার কাজটি করতে চান না। সেই সাথে অযথা ঝামেলা এড়ানোর জন্য এসব বিষয়ে গলা উঁচু করেই কথা বলার চেষ্টা করেন।

৩. নিজের জগৎ নিয়েই ব্যস্ত

মুভি দেখা, বই পড়া, টিভিতে খেলা দেখা- এ ধরনের কাজ নিয়ে ব্যস্ত থাকতেই পছন্দ করেন অধিকাংশ পুরুষ। মানে নিজেদের জগতে রাজার মতোই থাকতে চান তাঁরা। এই সময়ে যদি আপনি তাঁকে গুরুত্বপূর্ণ কোনো কথা বলতে চান তাহলে তিনি হু, হা করেই পার করে দেবেন। ভাববেন না যে তিনি আপনাকে গুরুত্ব দিচ্ছেন না। এই আচরণটা প্রায় সব পুরুষই কমবেশি করে থাকেন, যা কখনোই বদলাবে না।

৪. নজর

যদি আপনি কোনো শপিং মলে যান, তাহলে প্রথমেই দেখবেন কোনটা ভালো, কোথায় ছাড় আছে। কিন্তু পুরুষরা সুন্দরী মেয়েদের দেখতে একটুও দেরি করবেন না। রাগ হয়ে কোনো লাভ নেই, আপনি সঙ্গে থাকলেও এমনটা হবে আর না থাকলেও এমনটা হবে। তবে চিন্তা নেই যতই দেখুক না কেন সেটা শুধু দেখার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে। তাই এগুলো দেখেও না দেখার ভান করুন। শান্তিতে থাকবেন।

পুরুষদের শুধু এ ধরনের অভ্যাস আছে ব্যাপারটা মোটেও তা নয়। নারীদেরও এ রকম অনেক অভ্যাস রয়েছে। পুরুষরা শান্তির সন্ধানে এসব অভ্যাস মেনে নেন বা চেপে যান, যেমনটা নারীরাও ছাড় দেন।

আরো খবর »