রাজশাহীতে চিকিৎসক কর্তৃক অর্থ আত্মসাৎ, ৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

রাজশাহী থেকে ওবায়দুল ইসলাম রবি: রাজশাহীতে টিবিৎসক কর্তৃক অপারেশনের নামে অর্থ আত্মসাতেরঅভিযোগে পাওয়া গেছে। জমজম ইলামীয়া ক্লিনিক মালিকসহ তিনচিকিৎসকের বিরুদ্ধে চীফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলাটি দায়ের করেছে।

রাজশাহী নগরীর লক্ষীপুর সংলগ্ন জমজম ইসলামী হাসপাতালের কর্মরত ও জেলামেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ল্যাপারোসকপি ও জেনারেল সার্জন ডা.এ.কে,এম গোলাম কিবরিয়া ডন, ডা.জয়নাল আবেদিন, ডা. আব্দুল লতিফএবং জমজম হাসপাতালের পরিচালক মাইনুল ইসলামের বিরুদ্ধে আজ বুধবারভুক্তভোগীরা মামলা করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৭ মে পেটের ব্যাথায় রাজশাহীর জমজমহাসপাতালে ভর্তি হন পবার টেংরামারি এলাকার মিলনের স্ত্রী কাকলী আক্তারসাথী। এর পর তিনি জানতে পারেন তার অগ্নাশয়ে টিউমার জাতীয় পুরু একটি খন্ড রয়েছে। এরপর মামলার ২ নম্বর সাক্ষী জামিরুল আলী ও হোসেন আলীরমাধ্যমে মামলার ২ নম্বর আসামী ডা.জয়নাল আবেদিন ও ৩ নম্বর আসামী ডা.আব্দুল লতিফ প্রধান আসামি ডা. এ.কে,এম গোলাম কিবরিয়া ডন এর কাছে চিকিৎসার পরামর্শ দেন। অপারেশনের নামে ওই চিকৎসকরা প্রথমে ১লাখ টাকা এবং পরে ৭০ হাজার টাকা দাবি করে। তাদের শর্তে রাজি হন রোগীকাকলী। সুত্র মতে অনুযায়ী অর্ধেক টাকা নিয়ে অপারেশন করানো হয়। পরে২৬ মে পূর্ণ টাকা আদায় হলে বাদীকে ছাড়পত্র দিয়ে বিদায় দেয়া হয়।

কিন্ত ঘটনার ২ মাস পর ১৭ জুলাই ওই বাদী পুনরায় অসুস্থ হয়ে পড়লেআল্ট্রাসোনিক রিপোর্ট নিয়ে মামলার সাক্ষী রামেক হাসপাতালের সহকারীঅধ্যপাক এস.এম আহসান শহিদ ও ডা.শরীফা বেগমের কাছে দেখালে বাদীকাকলী জানতে পারেন তার কোন চিকিৎসা হযনি। চলতি মাসের ৯ তারিখেমামলার সাক্ষীডাক্তারসহ অভিযুক্ত ডাক্তারদের বিষয়টি জানালে তাদের কিছুই করার নেই বলে ধমক দিয়ে হাসপাতাল থেকে বের করে দেন।

বাদীর অভিযোগ,অপারেশনের নামে অর্থ আত্মসাত করার উদ্দেশ্যে অভিযুক্ত চিকিৎসকগণ হত্যারপরিকল্পনা করে। এতে করে বাদীর শারিরীক অবস্থা গুরুতর হয়ে পড়ে। এমতাবস্থায়অপারশের বাদীকে হত্যার উদ্দেশ্যে অস্ত্র চালিয়ে গুরুতর কাটা জখম করে এবংঅর্থনৈতিক ক্ষতি করে দন্ডবিধি আইনের বিভিন্ন ধারায় তাদের বিরুদ্ধেমামলা দায়ের করেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »