মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় কাজ করতে চাই-বঙ্গবন্ধুর ডাকে মুক্তিযোদ্ধারা এদেশ স্বাধীন করেছে

Feature Image

মানিকগঞ্জ  থেকে জালাল উদ্দিন ভিকুঃ  বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আলহাজ্ব এস এম জাহিদ বলেন-জাতি জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে যারা হত্যা করেছিল তাদের ফাঁসির রায় কার্যকর করা হয়েছে । আর যারা বিদেশে পলাতক আছে তাদের অভিলম্বে দেশে ফিরিয়ে এনে রায় কার্যকর করা জন্য সরকারের প্রতি আহবান জনান । ডাকে এ দেশের কৃষক, শ্রমিক,যুবক জেলে মুক্তিযুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছিল ।

 

আর ৩০ লক্ষ মানুষে রক্ত ২ লক্ষ মা-বোনে ইজ্জতের বিনিময়ে দেশ স¦াধীন করেছে । সেই সময় যখন দেশের আকাশে বাতাসে রক্তের গন্ধ,মাটিতে তখন শুকানি রক্তের দাগ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল সোনার গড়ার সেই স্বপ্ন যখন দেখতে শুরু করে। ঠিক সেই সময় এই দেশের পাকিস্থানী এজেন্টরা স¦াধীনতা বিরোধী চক্র জাতি পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে হত্যা করে । শুধু বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে খান্তহয়নি যুবলীগের চেয়ারম্যান শেখ মনি,শেখ কামাল,শিশু রাসেলসহ পরিবারের সদস্যদের হত্যার মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে নির্ষেশ করার ষড়যন্ত্র করেছিল। ঠিক সেই সময় দেশ ও জাতির স্বার্থে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরে দলের হাল ধরে কাজ করে যাচ্ছে । । তিনি আরো বলেন- প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা জনগনের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য ঘিওর-দৌলতপুর-শিবালয় উপজেলায় লক্ষ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয় ।

 

আপনারা যাকে ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি সংসদ সদস্য নির্বাচিত করেছেন আর জনগনের সেই বরাদ্দকৃত টাকা ও তার আত্মীয় স্বজন ভুয়া প্রকল্প দিয়ে ভাগভাটরা করে নিজেদের উন্নয়ন করছে । তিনি বলেন-ঘাটে নৌকা থাকলে সেই নৌকায় ভাল মানুষও উঠে আবার দুই এক জন চোরও উঠে পড়ে সেই নৌকার মালিক যদি চোরকে চিনতে পারতো তাহলে কিন্তু ঐ চোর নৌকায় উঠতে দিতো না । এই চোরদের বিরুদ্ধে রুখে দাড়াতে নেতা-কর্মী ও দৌলতপুর –ঘিওর-শিবালয় বাসীদের প্রতি আহবান জানান । আমার পিতা ছিল একজন মুক্তিযোদ্ধা দেশের জন্য যদি মুক্তিযোদ্ধারা জীবন দিতে পারে তাহলে আমি একজন মুক্তিযোদ্ধার ছেলে হয়ে জীবন দিতে পারবো না কেন । আপনারা অনেক নেতা দেখেছেন আমাকে একবার সুযোগ দিলে আমি বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে কাজে লাগিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় খেটে খাওয়া মানুষের সেবা ও দেশের উন্নয়নের কাজ করতে চাই ।

তিনি বলেন-বঙ্গবন্ধুর আর্দশকে কাজে লাগিয়ে নদী ভাঙ্গন ও চরাঞ্চলের খেটে খাওয়া মানুষের সেবা ও দেশের উন্নয়নের কাজ চাই । বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য মানুষের পাশে থেকে কাজ করতে চাই। আগামী সংসদ নির্বাচনে সকলের দোয়া ও সমর্থন কামনা করেন। তিনি বলেন-আমি নির্বাচিত হলে জনগনের নায্য অধিকার ফিরিয়ে দেব আমি জনগনকে দিতে এসেছি নিতে আসেনি । আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মী ও সাধারন জনগনের ভোটের মাধ্যমে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে আগামীতে আবারও নৌকায় ভোট দিতে সকলের প্রতি আহবান জানান ।
মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আলহাজ্ব এস,এম জাহিদ এর পক্ষ থেকে বুধবার ১৬ আগস্ট বুধবার জাতীয় শোক দিবস ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪২ তম শাহাদৎ বার্ষিকী পালিত হয়েছে ।

দুপুর ৩ টায় দৌলতপুর বাজার বাসস্ট্যান্ডে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আলহাজ্ব এস,এম জাহিদ এর নেতৃত্বে দৌলতপুর উপজেলার ৮ ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগের হাজার হাজার নেতাকর্মীর অংশগ্রহনে বিশাল শোক র‌্যালী বেড় হয় ।র‌্যালীটি উপজেলা পরিষদ,বাজার , প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে এবং তার পূর্বে আলোচনা সভায় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য আলহাজ্ব এস এম জাহিদ প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন ।

দৌলতপুর বাজার বাসস্ট্যান্ডে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সকলের উদ্যেশে বিশেষ মিলাদ মাহফিল ,আলোচনা, গণভোজের আয়োজন করা হয় ।
উক্ত আলোচনা সভায় উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের এর সভাপতিত্বে এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও জেলা যুবলীগের সভাপতি বাবু সুদেব সাহা,জেলা আওয়ামীলীগের উপ-প্রচার সম্পাদক ভি.পি ফরহাদ ,জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ফরিদ আহম্মেদ,জেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি আবু বকর খান সিদ্দিক তুষার, জেলা যুবলীগ নেতা আব্দুল জলিল, উপজেলা আওয়ামীলীগ শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক এস,এম, মালেক ভান্ডারী,যুবলীগের কেন্দ্রীয় নেতা জিয়াউল হক জিয়া, ঘিওর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান অহিদুল ইসলাম টুটুল, চকমিরপুর সদর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এস.এম শফিকুল ইসলাম শফিক,কলিয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জাকির হোসেন,চরকাটারী ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুল বারেক মন্ডল, আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম, দৌলতপুর উপজেলা কৃষকলীগের আহবায়ক আলমগীর হোসেন( আলম-ভিপি),কৃষকলীগের যুগ্ম আহবায়ক ও ইউপি সদস্য মো: টুনা শেক, ইউপি সদস্য জিল্লুর রহমান পিন্টু মোল্যা, যুবলীগ নেতা সানোয়ার হোসেন,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান সুমন, সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান,জুলহাস মিয়া,সাধারন সম্পাদক মো: জুয়েল রানা,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বুলবুল আহম্মেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন, প্রচার সম্পাদক মো: সুবোত মিয়া,দপ্তর সম্পাদক আরিফুল ইসলাম আলামীন,ক্রীড়া সম্পাদক মো: রুবেল হোসেন,উপজেলা মহিলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক দেলোয়ারা দোলন,সাংগঠনিক সম্পাদক জাহানারা আক্তার জেনি প্রমূখ ।

আরো খবর »