স্পেনে দ্বিতীয় দফা হামলার চেষ্টা, পাঁচ হামলাকারী নিহত

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: স্পেনের বার্সেলোনায় স্মরণকালের ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার পর দ্বিতীয়বার সন্ত্রাসীদের ভ্যানগাড়ি হামলাচেষ্টা প্রতিহত করেছে পুলিশ।

বার্সেলোনার অন্যতম শহর ক্যামব্রিলসে সন্দেহভাজন পাঁচ হামলাকারীকে গুলি করে হত্যার মাধ্যমে আরেকদফা হামলাচেষ্টা ঠেকিয়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তাদের সবার শরীরে বিস্ফোরক বেল্ট বাঁধা ছিল।

এরআগে বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে হঠাৎ শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত রামলায় হাঁটতে থাকা শত শত পথচারীর ওপর একটি সাদা পিকআপভ্যান তুলে দেওয়া হয়।

ওই হামলার সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী ১৩ জন নিহত ও অন্তত ৮০ জন আহত হন। এদের মধ্যে ১৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। হতাহতদের বেশিরভাগই পর্যটক।

তবে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজোও বার্সেলোনার গাড়ি হামলাকে ‘জিহাদি হামলা’ বলে অভিহিত করেছেন।

অন্যদিকে, বার্সেলোনায় বড় ধরনের ওই হামলার পরপরই স্পেনিশ কর্তৃপক্ষ ক্যামব্রিলসে ফের হামলাচেষ্টায় দুই ঘটনার মধ্যে যোগসূত্র খোঁজার চেষ্টা করছে।

প্রথম হামলার ঘটনাস্থল বার্সেলোনার রামলা পর্যটকদের কাছে একটি বিখ্যাত স্থান। শহরের পূর্ব দিকে অবস্থিত কলম্বাসের বিখ্যাত ভাস্কর্য থেকে পশ্চিমে প্লাসা কাতালুনিয়া পর্যন্ত বিস্তৃত পথ। দিন-রাতের পুরো সময় এই পথটি পর্যটক ও বার্সেলোনবাসীদর পদচারণায় মুখরিত থাকে। তাই হামলাকারীরা হামলার জন্যে এই রামলাকে বাছাই করে নিয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

২০০৪ সালে স্পেনের মাদ্রিদে পাতাল রেলের সন্ত্রাসী হামলায় ৮ জন নিহত হয়েছিল। এরপর সর্বশেষ গত বছরের ২৪ জুলাই রাতে স্পেনের পাশ্ববর্তী দেশ ফ্রান্সের নিস শহরে জাতীয় দিবসের অনুষ্ঠান চলাকালে জনতার ওপর একটি ভারি ট্রাক উঠিয়ে দিলে ৮৫ জন যাত্রী নিহত এবং বিপুল সংখ্যক মানুষ আহত হয়। ঘটনার এক বছর পরই বার্সেলোনার প্রায় একই স্টাইলে এই সন্ত্রাসী হামলা ঘটানো হয়।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »