সৌন্দর্য্য হারাবে যে খাবার খেলে!

Feature Image

ত্বক সুস্থ রাখার সঙ্গে আমাদের রোজ ডায়েটের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। তাই ত্বককে সুন্দর এবং প্রাণচ্ছ্বল রাখতে বেশ কিছু খাবারকে এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকেরা। তাদের মতে এই খাবারগুলি খেলে শরীরের বেশ কিছু খারাপ উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে, যা এক সময় গিয়ে ত্বকের স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটিয়ে দেয় যে সৌন্দর্যতা কমে যায়।

যে যে খাবারের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছেন সেগুলি হলঃ-

১। লবণঃ শরীরে লবণের পরিমাণ যত বাড়বে, জলের পরিমাণও তত বৃদ্ধি পেতে থাকবে। যার ফলে মুখের পাশাপাশি সারা শরীর ফুলতে শুরু করবে। ফলে সৌন্দর্য একেবারে তলানিতে গিয়ে ঠেকবে। তাই তো লবণ বেশি রয়েছে এমন জাঙ্ক ফুড, পাপড়, আচার এবং টিনজাত খাবার যতটা পারবেন এড়িয়ে চলুন। এমনটা করলে দেখবেন ত্বক একেবারে টানটান থাকবে।

২। চা-কফিঃ এই ধরনের পানীয়তে ক্যাফিনের মাত্রা বেশি থাকে, যা কর্টিজল হরমোনের ক্ষরণ বাড়িয়ে দেয়। এই হরমোনের মাত্রা যত বৃদ্ধি পায়, ত্বকের উপর তত বয়সের ছাপ পড়তে শুরু করে। সেই সঙ্গে ত্বক শুষ্ক হয়ে গিয়ে বলিরেখাও প্রকাশ পায়।

৩। মদ্যপান বা অ্যালকোহলঃ মদ্যপান করার পরে ত্বকের ভিতর জলের পরিমান কমতে শুরু করে। ফলে ধীরে ধীরে স্কিন ড্রাই হয়ে যাওয়া শুরু করে। এর ফলে বলি রেখা স্পষ্ট হয়ে ওঠে। সেই সঙ্গে নানাবিধ ত্বকের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়।

৪। মিষ্টি জাতীয় খাবারঃ বেশি মাত্রায় মিষ্টি জাতীয় খাবার খেলে সারা শরীরে প্রদাহ সৃষ্টি হয়, যা বিশেষ কিছু এনজাইমের ক্ষরণ বাড়িয়ে দেয়। এই এনজাইমগুলি ধীরে ধীরে ত্বকের ভিতর থাকা কোলাজেন এবং এলেস্টিন নামক দুটি উপাদানকে ভেঙে দেয়। ফলে ত্বকের সৌন্দর্য কমে যেতে শুরু করে। সেই সঙ্গে স্কিনের উপর বয়সের ছাপও পরতে শুরু করে।

৫। ভাঁজা খাবারঃ ভাঁজা খাবার খাওয়া মাত্র শরীরের হাইড্রোজেনেটেড ফ্যাটের পরিমাণ বৃদ্ধি পায়, যা দেহের অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পরিমাণ কমিয়ে দেয়, সেই সঙ্গে ভিটামিন-ই এবং ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের মাত্রাও কমতে শুরু করে। ফলে ফ্রি রেডিকাল বা ক্ষতিকর উপাদানের মাত্রা বাড়তে থাকে।

আরো খবর »