জঙ্গিবাদ ও মাদক প্রতিরোধে কঠোর হতে হবে: আইজিপি

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: পুলিশের আইজিপি একে এম শহীদুল হক বলেছেন, জঙ্গিবাদ ও মাদক প্রতিরোধে কঠোর হতে হবে। কোনোভাবেই কেউ যেন জঙ্গিবাদ ও মাদকের প্রভাব বিস্তার করতে না পারে সেদিকে নজর দিতে হবে। মামলার তদন্তের ওপর ভিত্তি করেই অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত হবে এবং ভিকটিম প্রতিকার পাবে।

শনিবার সকালে বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি সারদার ঐতিহাসিক প্যারেড গ্রাউন্ডে ৩৫তম বহিরাগত ক্যাডেট সাব-ইন্সপেক্টর/২০১৬ ব্যাচের সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শহীদুল হক এসব কথা বলেন।

আইজিপি বলেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা, দুষ্টের দমন ও শিষ্টের লালনের মাধ্যমে রাষ্ট্র ও জনগণের জান-মালের নিরাপত্তা দেয়ার পাশাপাশি সমাজে শান্তি-শৃংখলা স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সময়ের পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পুলিশের কর্মপরিধির মাত্রা সংযোজনের মধ্যে অপরাধ সংঘটনের কৌশলও পরিবর্তন করছে অপরাধীরা। কিন্তু তারপরেও কর্মজীবনে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করে দেশ গঠন ও জনসেবায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখতে হবে। জনবান্ধব ও সেবাধর্মী পুলিশিং এর উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে হবে।

শহীদুল হক বলেন, কর্মজীবনে দেশপ্রেমে অভিষিক্ত হয়ে সমাজ হতে সন্ত্রাস নিমূলে, জনশৃংখলা রক্ষায় এবং জনগণের নিরাপত্তাবিধানে গভীর নিষ্ঠা ও কঠোর দায়িত্ববোধের মাধ্যমে অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে হবে। নিষ্ঠুর ও অমানবিক আচরণ পরিহার করে মানবাধিকার রক্ষায় নারী ও শিশুদের অধিকার রক্ষায় পুলিশ বাহিনীকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।

তিনি বলেন, পুলিশ বাহিনীতে ভালো কাজের জন্য রয়েছে পদোন্নতি, আর  খারাপ কাজের জন্য রয়েছে কঠোর শাস্তি। সেই দিক লক্ষ্য রেখে সামনের দিনে ন্যায়, নিষ্ঠা ও সততার সঙ্গে তোমাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করতে হবে।

এর আগে একে এম শহীদুল হক নবীন প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যদের কুচকাওয়াজ পরিদর্শন এবং বিভিন্ন বিষয়ে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনরকারী পাঁচজন ক্যাডেট সাব-ইন্সপেক্টরদের হাতে পদক তুলে দেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- পুলিশ একাডেমির প্রিন্সিপাল নাজিবুর রহমান এনডিসি, ভাইস প্রিন্সিপাল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বিপিএম, রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি এম খুরশীদ হোসেন, অতিরিক্ত ডিআইজি নিশারুল আরিফ, রাজশাহী পুলিশ সুপার মোয়াজ্জেম হোসেনসহ একাডেমির উচ্চপর্যায়ের কর্মকর্তারা।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »