রানীশংকৈল সড়কটি কাজ নিম্নমানের করা হয়েছে: এমপি সেলিনা

Feature Image

ঠাকুরগাঁও থেকে জাহিদ হাসান মিলু : ঠাকুরগাওয়ের রাণীশংকৈল প্রধান সড়কের উন্নয়ন কাজে সদ্য একান্ন লাখ টাকা ব্যয় করা হয়েছে। তাতে উন্নয়নমূলক কাজের সিংহভাগ টাকা আত্মসাৎ করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স রজব এন্টারপ্রাইজ এমনটাই অভিযোগ করছেন স্থানীয় জনসাধারণ। রাস্তা মেরামতের কাজে করা হয়েছে পুকুর চুরি। চাহিদার তুলনায় কম পরিমান নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছে। আর্থিক লাভবান হয়েছে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান, সওজ প্রকৌশলী সহ সংশ্লিষ্টরা।

দির্ঘদিন যাবৎ শিবদিঘি যাত্রী ছাউনী মোড় থেকে বড় ব্রীজ পর্যন্ত রাস্তাটিতে পথচারী, যানবাহন চরম ঝুঁকির মুখে চলাচল করতে হত। একটু বৃষ্টি হলেই হাঁটু পানি জমতো রাস্তার উপর। ভারী যানবাহন চলাচলের ফলে খাল খন্দরে পরিনত হয়ে রিক্সা, ভ্যানের চাকা চ্যাপটা হয়ে দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়েছে চলাচলকারীদের। সংবাদকর্মীদের তৎপরতায় রাস্তাটি চলাচলের উপযোগি করার জন্য প্রায় ৫১ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। তাতে রাস্তার কাজ মান সম্মত না করে একটু বৃষ্টি হলেই পৌরসভা গেট সহ সিংহভাগ রাস্তার উপর বৃষ্টির পানি জমে থাকে।

মেরামত কাজ শেষ হওয়ার এক সপ্তাহের মাথায় আবারও রাস্তায় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। রোলারের কাজ ঠিকমতো না করায় পুরো রাস্তা উঁচু-নিচু থাকায় পানি ধরে থাকে যা রাস্তাটি নষ্ট হতে বেশি দিন সময় লাগবে না। জুনের মাঝামাঝি সময়ে কাজ শুরু করে মাসের শেষে তা শেষ করে প্রতিষ্ঠানটি। নিম্নমানের কাজ করার ফলে কাজ শেষ করার ১০ দিনের মধ্যেই রাস্তায় গর্ত সৃষ্টি হয়েছে ।

এ ব্যাপারে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের স্বত্তাধিকারী রজব আলী দ্বিধাহীন কণ্ঠে বলেন, সবাইকে ম্যানেজ করে কাজ করতে হয়, বুঝতেই তো পারছেন।
সওজ জেলা প্রকৌশলী মোতাহার হোসেনের সাথে রাস্তার কাজ খারাপ হওয়ার বিষয়ে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন।

ঠাকুরগাঁও-৩০১ সংরক্ষিত আসনের মহিলা এমপি জনাব সেলিনা জাহান লিটা কে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন এই রাস্তার কাজ খুব খারাপ ও নিন্মমানের করা হয়েছে তাই অল্প দিনের মধ্যে রাস্তায় জাগায় জাগায় গর্ত হয়ে গেছে। আমি সংশিষ্ট মন্ত্রারালয় দীর্ঘ দিন ধরে যোগাযোগ করে এই সড়কটি বরাদ্দ নিয়ে এসেছি ঠিকাদার সময় মত সড়কের কাজটি না করে অল্প সময়ের মধ্যে কাজ করে কাজের মান খুব খারাপ করছে। এই সড়ক টি নি¤œমানে কাজের তদন্ত করে ঠিকাদার এবং সওজ জেলা প্রকৌশলীদের শাশিÍর ব্যবস্থা করা হোক সাধারন জনগনের প্রাণের দাবি। এই রকম দুরর্নীতি বাজ প্রকৌশলীদের দুরর্নীতি তদন্ত করে আইনের আওতায় নিয়ে এসে গ্রেফতার করা হোক কারন এই সড়কটির কত টাকা পুকুর চুরি করা হয়েছে।

আরো খবর »