শিবির সন্দেহে ইবি শিক্ষার্থীসহ ৪ জনকে পুলিশে দিল ছাত্রলীগ

Feature Image

ইবি থেকে এ আর রাশেদঃ  ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) শিবির সন্দেহে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীসহ চার জনকে মারধর করে পুলিশে দিয়েছে ইবি শাখা ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ক্যাফেটারিয়ার সমানে থেকে তাদের আটক করে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এরপর শিবির সন্দেহে তাদেরকে মারধর করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, বিকাল ৪টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জিয়া মড়ে চারজনকে সন্দেহজনকভাবে ঘুরাফেরা করতে দেখা যায়। এরপর ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং শিবির সন্দেহে তল্লাশি করে তাদের কাছ থেকে ৮টি জিহাদী বই ও চারটি সিম পাওয়া যায়। এরপর তাদেরকে টিএসসিসি’র ১১৬ কক্ষে আটকে রেখে গণধোলাই করে ছাত্রলীগ। পরে ঘটনাস্থলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও পুলিশ উপস্থিত হলে তারা ওই চারজনকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করে। অভিযুক্ত ওই চারজনের মধ্যে একজন হলেন বিশ^বিদ্যালয়ের আল ফিকহ বিভাগের ১ম বর্ষেও শিক্ষার্থী রেদওয়ান এবং বাকি তিনজন হলেন ঝিনাইদহ জেলার বিষয় খালি উপজেলার আবু ইছাক, চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার আবু সাইদ ও শামছুদ্দিন।

এ বিষয়ে বিশ^বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহিনুর রাহমান শাহিন বলেন, ‘ক্যাম্পাসে যদি কেউ কোনভাবে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি করে বা কারার চেষ্টা করে তাহলে ছাত্রলীগ তাকে ছাড় দেবে না। আমরা ইতোমধ্যে ক্যাম্পাসকে শিবির মুক্ত ঘোষণা করেছি। ক্যাম্পাসের যেখানে শিরিব পাওয়া যাবে সেখানেই ধোলাই হবে।’

এ বিষয়ে ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন শেখ বলেন, ‘আমারা ওই চারজনকে জিহাদী বইসহ গ্রেপ্তার করেছি। তাদের বিরুদ্ধে মামলার কাজ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।’

 

আরো খবর »