ভ্যাস প্রোভাইডার নিবন্ধনের উদ্যোগ বিটিআরসির

Feature Image

টেলিকম সেবায় ভ্যালু অ্যাডেড সার্ভিস (ভ্যাস) প্রোভাইডার নিবন্ধনের বিষয়ে উদ্যোগ নিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

এজন্য একটি গাইডলাইন প্রস্তুত করে মতামতের জন্য বিটিআরসির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। গাইডলাইন বিষয়ে গ্রাহকদের মতামত আগামী ৬ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ই-মেইলে (sunjib@btrc.gov.bd) পাঠানো যাবে।

গ্রাহকদের মতামত অতি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনায় নিয়ে অতি শিগগিরই গাইডলাইন চূড়ান্ত করা হবে বলে জানিয়েছে বিটিআরসি।

আবেদন ফি ৫ হাজার টাকা, পাঁচ বছরের জন্য নিবন্ধন ফি ৫০ হাজার টাকা ধরা হয়েছে। অপারেটরদের ভ্যাস সেবা দেওয়ার সংশ্লিষ্ট নিয়ম-কানুন এতে উল্লেখ করা হয়েছে।

বর্তমানে দেশে শিল্পী, কবি বা গেমস প্রস্তুতকারীরা (কনটেন্ট প্রোডিউসার) পণ্য তৈরি করে কনটেন্ট প্রোভাইডারদের হাতে তুলে দেন। ওয়েলকাম টিউন, ক্রিকেট আপডেট, স্বাস্থ্য পরামর্শ, তাৎক্ষণিক খবরের মতো সেবাগুলো কনটেন্ট প্রোভাইডাররা মোবাইল অপারেটরদের কাছে বিক্রি করে। অপারেটররা গ্রাহকের কাছে ভ্যাস সেবা পৌঁছে দেয়।

ভ্যাস সেবায় ন্যায্যমূল্য পরিশোধে গড়িমসি, সৃজনশীলতা চুরি ও কপিরাইট লঙ্ঘন করাসহ অপারেটরগুলোর বিরুদ্ধে নানা ধরনের অভিযোগ করে আসছে কনটেন্ট প্রোভাইডাররা। এ অবস্থায় ভ্যাস গাইডলাইন তৈরির উদ্যোগ নেয় বিটিআরসি।

এর আগে ২০১২ সালেও ভ্যাস নীতিমালা চূড়ান্ত করতে উদ্যোগ নিয়েছিল বিটিআরসি।

আরো খবর »