টেক্সাসে আঘাত হেনেছে ‘ভয়ঙ্কর’ ঘূর্ণিঝড় হার্ভে

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে আঘাত হেনেছে ঘূর্ণিঝড় হার্ভে। ঘণ্টায় ২০৯ থেকে ২৫১ কিলোমিটার গতিবেগে ধেয়ে আসছে এই ঘূর্ণিঝড়। চার মাত্রার হার্ভে উপকূল পেরিয়ে লোকালয়ে আঘাত হেনেছে।

টেক্সাস থেকে সরিয়ে নেয়া হয়েছে ১০ হাজার লোককে। এছাড়া সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্নসহ ব্যাপক ধ্বংসযজ্ঞের আশঙ্কা রয়েছে।

মেক্সিকো উপসাগর পার হয়ে শুক্রবার মধ্যরাতে চার মাত্রার হার্ভে টেক্সাসে আঘাত হানার তথ্য জানিয়েছেন সেখানকার গভর্নর। গত এক যুগের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে এটাই সবচেয়ে বড় ঘূর্ণিঝড়।

ইতোমধ্যেই টেক্সাসকে দুর্যোগপূর্ণ স্থান হিসেবে ঘোষণা করে ত্রাণ পাঠানোর নির্দেষ দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। হোয়াইট হাউস থেকে জানানো হয়েছে, অাগামী সপ্তাহে টেক্সাসে যাবেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

আবহাওয়াবিদ অ্যাবট বলছেন, ঘূর্ণিঝড় হার্ভে ক্রমশই বিপজ্জনক আকার ধারণ করছে। হার্ভে আঘাত হানার ফলে টেক্সাসের বৃহৎ তেল পরিশোধন প্রতিষ্ঠানসহ তিন লাখ ২০ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

শুক্রবার দেশটির আবহাওয়া অধিদফতর থেকে জানানো হয়েছিল, ঘূর্ণিঝড় হার্ভে তিন মাত্রায় আঘাত হানবে। এতে করে প্রতি ঘণ্টায় ১৭৮ থেকে ২০৮ কিলোমিটার গতিবেগে আঘাত হানার পর ঘরবাড়িসহ গাছপালার ক্ষতির আশঙ্কার কথা জানানো হয়।

অথচ তা বেড়ে চার মাত্রায় আঘাত হানছে হার্ভে। ফলে ২০০৫ সালের অক্টোবরে ফ্লোরিডায় ঘূর্ণিঝড় উইলমা’র পর সবচেয়ে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড় অাঘাত হানছে দেশটিতে।

উইলমায় ৮৭ জন লোক মারা গেলেও ওই বছর আরেক ঘূর্ণিঝড় ক্যাটরিনার অঅঘাতে দুই হাজার জনের প্রাণহানি ঘটে।

এর আগে ২০০৪ সালে চার মাত্রার ঘূর্ণিঝড় আঘাত হেনেছিল।সূত্র : বিবিসি

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »