ফরিদপুরে শিশুপুত্রকে হত্যা করে মায়ের আত্মহত্যা

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ফরিদপুর থেকে হারুন-অর-রশীদ: ফরিদপুরের মধুখালীতে শিশুপুত্রকে হত্যা করে আত্মহত্যা করেছে এক মা। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার গাজনা ইউনিয়নের বাড়াইল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মা ফরিদা বেগম (২৫) ওই গ্রামের দিন মজুর আনিস শেখের স্ত্রী। ফরিদা বেগমের নিহত শিশু রসুল শেখের বয়স আড়াই বছর।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সকাল ৮টার দিকে আনিস শেখ বাড়ি থেকে আনুমানিক এক কিলোমিটার দূরে একটি জমিতে পাট কাটতে যান। ওই সময় বাড়িতে তাঁর স্ত্রী ফরিদা বেগম ও শিশু রসুল শেখ ছিল। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ফরিদার ভাসুর আলমগীর শেখ বাড়িতে এসে ফরিদা বেগম ও তাঁর শিশু পুত্রকে গলায় রশি বাঁধা ঘরের আড়ার সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান।

ফরিদার স্বামী আনিস শেখ জানান, তিনি সকালে বাড়িতে তাঁর স্ত্রী ও শিশু রসুলকে রেখে পাট কাটতে যান। পরে লোকমুখে খবর শুনে তিনি বাড়িতে এসে মা ও ছেলের লাশ ঝুলন্ত  অবস্থায় দেখতে পান। পরে তিনি গ্রামবাসীদের সহায়তায় লাশ নামিয়ে ফেলেন, কিন্তু ততক্ষণে সব শেষ হয়ে গেছে।

গাজনা ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান মোল্লা জানান, আমরা জানতে পেরেছি মা ছেলেকে হত্যা করে পরে নিজে আত্মহত্যা করেন।

গাজনা ইউনিয়নের ৭/৮/৯ নম্বর সংরক্ষিত নারী ইউপি সদস্য জরিনা বেগম বলেন, ফরিদার সাথে তাঁর স্বামীর প্রায়ই পারিবারিক কলহ হতো। তিনি বলেন, ফরিদা বেগমের দুই ছেলে। বড় ছেলে রাজবাড়ীতে নানার বাড়িতে থাকে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে মধুখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রুহুল আমিন বলেন, মৃত দেহ দুটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। তিনি বলেন, পারিবারিক অশান্তি কিংবা অভাবের কারণে এ ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তিনি বলেন, এ ব্যাপারে নিহতের স্বামী আনিস শেখ বাদী হয়ে থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের করা হয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »