‘ত্রাণ দিতে গিয়ে প্রধানমন্ত্রী ভোট চাইতে ব্যস্ত’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: ‘বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেরিতে হলেও ত্রাণ দিতে গিয়ে নৌকায় ভোট চাচ্ছেন। মানুষ বন্যায় ভাসছে ত্রাণ পাচ্ছে না অথচ প্রধানমন্ত্রী নৌকায় ভোট চাইতে ব্যস্ত’, বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জাতীয় ত্রাণ ও পুনর্বাসন কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী ও দলের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান।

রোববার বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ‘বন্যা পরিস্থিতি ও ত্রাণ’ বিষয়ে ব্রিফ করতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন নোমান। এসময় বন্যার্তদের সহযোগিতায় সরকারের প্রতি ১০ দফা দাবি তুলে ধরেন তিনি। সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুসহ কেন্দ্রীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বিএনপির ১০ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, সমন্বিত উদ্যোগের মাধ্যমে কৃষি পুনর্বাসন, কৃষকদের বিনা সুদে ঋণ প্রদান, গৃহহারা মানুষদের অতিদ্রুত গৃহ নির্মাণের ব্যবস্থা, মানুষ ও গো-খাদ্যের ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণ, দ্রুততম সময়ের মধ্যে কৃষকদের ধানের চারা বিনামূল্যে বিতরণ, বিশুদ্ধ পানির জন্য পর্যাপ্ত সংখ্যক নলকূপ স্থাপন, জরুরি ভিত্তিতে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করে বিনামূল্যে চিকিৎসা ও ওষুধের ব্যবস্থা করাসহ ইত্যাদি।

আবদুল্লাহ আল নোমান বলেন, ‘আমি বন্যাদুর্গত জামালপুর, শেরপুরসহ বেশ কয়েকটি জেলায় ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে দেখেছি, তাদের দুঃখ-দুর্দশা ও অবর্ণনীয় দুর্ভোগের চিত্র। বন্যাদুর্গতারা পানি সাঁতরিয়ে কিভাবে খাবারের জন্য আসে, সেই দৃশ্য এখনও আমার চোখে ভাসছে। অথচ বিএনপি’র ত্রাণ কার্যক্রমেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সরকার দলীয় লোকেরা বাধা সৃষ্টি করছে।’

নোমান অভিযোগ করে বলেন, ‘এই মহাদুর্যোগ মোকাবিলায় বর্তমান সরকারের কোনও মাথাব্যথা নেই। তাদের একটিই মাথাব্যথা, সেটি হলো কিভাবে খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান তথা জিয়া পরিবারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে, কুৎসা রটিয়ে, সর্বোপরি বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে বানোয়াট, ভুয়া ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা দায়েরের মাধ্যমে গ্রেফতার ও কারান্তরীণ করে বিএনপিকে ধ্বংস করা যায়।’

‘জাতিসংঘ বন্যাদুর্গতদের দুঃখ-দুর্দশা ও দেশের খাদ্য ঘাটতি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার মন্ত্রীপরিষদের সদস্যরা লাগামহীনভাবে মিথ্যাচার করছেন’, বলেও মন্তব্য করেন বিএনপির এ নেতা।

আবদুল্লাহ আল নোমান জানান, আগামীকাল থেকেই বন্যাদুর্গত এলাকাগুলোতে তালিকা করে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে বিএনপির জাতীয় ত্রাণ ও পুনর্বাসন কমিটির পক্ষ থেকে এই আর্থিক অনুদান কিংবা ঘরবাড়ি নির্মাণের ম্যাটেরিয়ালস ও কৃষকদেরকে ধান বীজ ক্রয় বাবদ অর্থ প্রদানের কাজ শুরু হবে।

এসময় বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীদের আরও বেশি করে নিজ নিজ সাধ্য মতো ত্রাণ কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ার আহ্বান জানান নোমান। পাশাপাশি দেশের সব এনজিও, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানসহ সামর্থ্যবানদের দুর্গত মানুষের সাহায্যার্থে এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন তিনি।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »