কালকিনিতে চাকরির নামে বেকার যুবকদের সর্বস্ব কেরে নিচ্ছে প্রতারক চক্র

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

মাদারীপুর থেকে ইকবাল হোসেন: মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার ডাসারে চাকরির নামে বেকার যুবকদেরসর্বস্ব কেরে নিচ্ছে প্রতারক চক্র। আর প্রতারক চক্রের পাতানো ফাঁদে পড়ে গোলক ধাঁধায় পড়ে অনেক যুবকের জীবন এখন হতাশায় পরিনত হয়েছে।

এ ব্যাপারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করে আজ(সোমবার) সকালে ডাসারের পূর্বনবগ্রাম গ্রামে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে গ্রামবাসী।

জানাগেছে, গাজীপুরের বোর্ড বাজারে লাইফ ওয়ে বাংলাদেশ নামের একটি প্রতিষ্ঠান চাকরি দেয়ার কথা বলে অভিনব কায়দায় বেকার যুবকদের কাছ থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। তারা ইলেকট্রিক পন্য বিক্রির শো-রুমে চাকরি দেয়া হবে বলে আগ্রহী প্রার্থীদের কাছ থেকে জামানতের অযুহাতে ৪০হাজার করে টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। আর যে তাদের পাতানো ফাঁদে পা দেয় তাকে পুঁজি করে আবার তার মাধ্যমে অন্য প্রার্থীদের একই ভাবে উক্ত চক্রে যুক্ত করছে। আর ভূক্তভোগীরা প্রতারনার ফাঁদে পড়ে খোয়া যাওয়া অর্থ উত্তোলনের জন্য শেষ মেষ তাদেরসদস্য হিসেবে কাজ করে এবং তাদের মাধ্যমে ফের নতুন কেউ উক্তপ্রতারনার শিকার হয়।

কিন্তু কালকিনি উপজেলার ডাসারের পূর্ব নবগ্রাম গ্রামের রমেশ বাড়ৈর ছেলে অলক বাড়ৈ সেই প্রতারক কোম্পানির প্রতিনিধি হিসেবে একই গ্রামের অতুল শিকারির ছেলে সজল শিকারিকে চাকরির প্রলোভনে ৪০হাজার টাকা নিয়ে উক্ত প্রতারনার ফাঁদে ফেলে। একই ভাবে পার্শ্ববর্তী খাঞ্জাপুর গ্রামের সঞ্জিব কুমার মল্লিকের ছেলে সবুজ মল্লিক সহ ১০/১২জন বেকার যুবককের কাছ থেকে ৪০হাজার টাকা করে হাতিয়ে নিয়েছে। এনিয়ে গ্রামে ইউপি চেয়ারম্যান সহ গ্রামের গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে কয়েক দফা সালিশ বৈঠক হয়েছে পর্যন্ত। আর চাঁপের মুখে কয়েক জনের টাকা ফেরত দেয়া হলেও অসহায় ও প্রভাবে দূর্বল লোকদের অর্থ ফেরত দেয়া হচ্ছে না।

মাদারীপুর লিগ্যাল এইড এসোশিয়েশনের ডাসার ইউনিয়নের সমন্বয়ক সৈয়দা মুরসিদা, নবগ্রাম ইউনিয়নের সমন্বয়ক রেখা রানি, সালিশ অনিল মল্লিক সহ ১০/১২জন সালিশ গন জানায় পূর্ব নবগ্রাম গ্রামের রমেশ বাড়ৈর ছেলে অলক বাড়ৈ চাকরির নামে বেকার যুবকদের কাছ থেকে হাজার হাজার টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। আর এনিয়ে প্রতিনিয়ত ভূক্তভোগীদের অভিযোগ বাড়ছে। তবে এব্যাপারে প্রশাসনের পক্ষথেকে ব্যবস্থা না নিলে এমন প্রতারনার ঘটনা দিনকে দিন বৃদ্ধি পাবে। এসব অভিযোগের ব্যাপারে জানতে অভিযুক্ত অলক বাড়ৈ ও তার পিতা রমেশ বাড়ৈর কাছে যাওয়া হলে তাদের পাওয়া যায়নি।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »