জাতীয় কবির ৪১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কুষ্টিয়ায় আলোচনা সভা

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

কুষ্টিয়া: জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম এঁর ৪১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কুষ্টিয়ায় আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।  রবিবার সন্ধ্যায় জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন নজরুল একাডেমী কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি ও কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এবং দৈনিক বাংলাদেশ বার্তা পত্রিকার সম্পাদক আবদুর রশীদ চৌধুরী।  কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমী ও নজরুল একাডেমী কুষ্টিয়া জেলা শাখা এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

কাজী নজরুল ইসলামের কর্মময় জীবন নিয়ে আলোচনা করেন উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী কুষ্টিয়া জেলা সংসদের সভাপতি এবং নজরুল একাডেমী কুষ্টিয়া জেলা শাখার সিনিয়র সহসভাপতি  এ্যাড, অনুপ কুমার নন্দী, কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক ও নজরুল একাডেমী কুষ্টিয়া জেলা শাখার গবেষনা ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ আমিরুল ইসলাম, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক প্রফেসর ড. সরওয়ার মুর্শেদ রতন,

বিশিষ্ট লেখক ও গবেষক ও কলামিষ্ট শেখ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ মিন্টু, কুষ্টিয়া সরকারী মহিলা কলেজের বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ও নজরুল একাডেমী কুষ্টিয়া জেলা শাখার নির্বাহী সদস্য ড. মাসুদ রহমান, নজরুল একাডেমী কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব আশরাফ উদ্দিন নজু, কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমীর কালচারাল অফিসার সুজন রহমান, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর যুগ্ম সাধারন সম্পাদক  ও নজরুল একাডেমী কুষ্টিয়া জেলা শাখার নির্বাহী সদস্য শাহীন সরকার প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, মানবতা ও সাম্যের কবি ছিলেন নজরুল।  তিনি আধুনিক বাংলা গানের বুলবুল কবি নজরুল ছিলেন বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী।  তিনি একাধারে ছিলেন গল্পকার, ঔপন্যাসিক, নাট্যকার, প্রাবন্ধিক, সাংবাদিক, সম্পাদক ও অনুবাদক।  কবি তার অনন্যসাধারণ লেখনীর মাধ্যমে আমাদের সাহিত্য, সংগীত ও সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করেছেন।  অত্যাচার, নিপীড়ন ও শোষণের বিরুদ্ধে তিনি ছিলেন সোচ্চার।  তিনি আমাদের বিদ্রোহী কবি।  তার শিকল ভাঙার গানে জেগে উঠেছিল ঝিমিয়ে পড়া বাঙালি জাতি।  বক্তারা আরও বলেন, ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলনে তার লেখনী এ উপমহাদেশের মানুষকে উজ্জীবিত করেছিল।  সংগ্রাম করে প্রগতির পথে এগিয়ে চলার সাহস যুগিয়েছিল।  বিদ্রোহী কবির অগ্নিঝরা কবিতা ও গান আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে ছিল প্রেরণার উৎসও ছিলো।

আলোচনা সভা শেষে নজরুল একাডেমী ও শিল্পকলা একাডেমীর শিল্পীদের সমন্বয়ে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।  এতে সঙ্গীত পরিবেশন করেন, কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমীর কালচারাল অফিসার সুজন রহমান, কোহিনুর খানম, এসএম টিপু সুলতান, খাদিজা খাতুন লিমা, ড. সুমাইয়া খানম ইভা, আদিত্য ইসলাম আবির, অরণ্য।  কবিতা আবৃত্তি করেন নুরে মাইশা, কবির আনোয়ার বকুল, আলিমুল হক সনজু।  অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কবি কনক চৌধুরী।  এর আগে কবিতীর্থ চুরুলিয়ার নজরুল একাডেমীর সাধারন সম্পাদক কবি নজরুলের ভ্রাতুস্পুত্র কাজী মোজাহার হোসেনের মৃত্যুতে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম /এমআর

আরো খবর »