‘না’ ভোটের পক্ষে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার না করার পাশাপাশি ‘না’ ভোট চালুর পক্ষে মত দিয়েছে বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি।

বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সিইসির সঙ্গে সংলাপে দলের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হকের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের প্রতিনিধি দল অংশ নেয়। সংলাপে প্রতিনিধি দলের সদস্যরা এই দাবি জানান।

এসময় কে এম নূরুল হুদার নেতৃত্বে চার নির্বাচন কমিশনার, ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব উপস্থিত ছিলেন।

রাজনৈতিক সমঝোতার ভিত্তিতে ভোটের সময় নির্বাচিত সরকারের অধীনে তদাররিক সরকার গঠন, ভোটার সংখ্যা অনুপাতে সীমানা পুনর্নির্ধারণ, তফসিল ঘোষণার পর সংসদ ভেঙে দেওয়াসহ ২৩ দফা সুপারিশ করেছে দলটি।

বৈঠক শেষে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি’র সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমরা ২৩টি প্রস্তাব উপস্থাপন করেছি। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য ইসি এসব সুপারিশ আমলে নেবে বলে প্রত্যাশা করি।

তিনি জানান, জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের আনুপাতিক প্রতিনিধিত্ব চালুর সুপারিশ করা হয়েছে। এতে ৫০ শতাংশ আসন এলাকাভিত্তিক প্রত্যক্ষ ভোট ও বাকি ৫০ শতাংশ আসনে ভোটের আনুপাতিক হারে সংসদ সদস্য নির্বাচন হতে পারে।

তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচনকালীন তদারকি সরকার গঠনে রাজনৈতিক সমঝোতার প্রস্তাব করা হয়েছে বলে জানান এ নেতা।

এছাড়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয় ইসির অধীনে রাখা, ভোটার সংখ্যা অনুপাতে সংসদীয় আসন পুননির্ধারণ, ‘না’ ভোটের বিধান যুক্ত করা, প্রবাসীদের ভোটাধিকার, ইভিএম ব্যবহার না করা, অনলাইনে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার ব্যবস্থা চালু, সবার জন্য সমান সুযোগ নিশ্চিত করা, গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণের তৎপরতা বন্ধ, সংসদ ভেঙে দেওয়াসহ সব মিলিয়ে ২৩ দফা সুপারিশ করেছে দলটি।

২৪ আগস্ট রাজনৈতিক দলের সংলাপ শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট, বাংলাদেশ মুসলীম লীগ-বিএমএল, খেলাফত মজলিশ ও বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সঙ্গে মত বিনিময় করেছে ইসি।

বুধবার বিকেলে জাগপা’র সঙ্গে ইসির সংলাপের কথা রয়েছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »