সহকর্মীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হলে কী হয়, জানালেন কঙ্গনা

Feature Image

বিনোদন ডেস্ক : পাহাড়ি রক্ত শরীরে বইছে। ভয় তাঁর বরাবরই কম। তাই কোনওদিন রাখঢাক করে কথা বলতে শেখেননি কঙ্গনা রানাউত। সেই ধারাই বজায় রাখলেন সাম্প্রতিক এক সাক্ষাৎকারে। পরোক্ষে ফের নিজের প্রাক্তন ‘বয়ফ্রেন্ড’ হৃতিক রোশনকে একহাত নিলেন নায়িকা। জানালেন, সহকর্মীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হলে পরিস্থিতি জটিল হয়ে যায়।

জনপ্রিয় সিনে-পত্রিকা ফিল্মফেয়ারে প্রকাশিত ওই সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা জানান, কোনও পুরুষ প্রত্যাখাত হলে খুবই অসহ্য হয়ে ওঠে। তখনই কাজের পরিবেশ নষ্ট হয়ে যায়। আর বিবাহিত সহকর্মীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে উঠলে সবকিছু জটিল হয়ে পড়ে। সব জায়গাতেই এই একই খেলা চলে। নায়িকা এও জানান, কম বয়সী মেয়েরা বেশিরভাগ সময়ই বিবাহিত পুরুষদের কথা বিশ্বাস করে ফেলেন। ওই পুরুষরা তাঁদের কাছে এসে বলে যে তারা স্ত্রীর কাছে মারধর পর্যন্ত খায়। আলাদা ঘরে শোয়। এই বলেই তাঁরা সমবেদনা আদায় করে নেয়। একদিন নায়িকা বয়সে বড় প্রেমিকের হাতেও নিগ্রহের শিকার হয়েছিলেন। কিন্তু আজ তিনিই অনেকটাই পরিণত। তাই এমন ফাঁদে আর পা দেবেন না বলেই বিশ্বাস কঙ্গনার।

 

এখন সম্পূর্ণ পেশাদার কঙ্গনা। এখন তাঁর বলতে কোনও দ্বিধা নেই, সমস্ত কাজ টাকার জন্যই করেন তিনি। অর্থ ও নিরাপদ ভবিষ্যৎ ছাড়া এই সাফল্য ও স্টারডমের কোনও মানেই নেই বলে মনে করেন বলিউড ‘ক্যুইন’। তাই এখন তাঁর একমাত্র লক্ষ্য, মন দিয়ে কাজ করা ও অর্থ উপার্জন করা। তবে জীবনে এতবার প্রতারণার শিকার হয়েও ভালবাসার উপর থেকে বিশ্বাস হারননি অভিনেত্রী। যদি জীবনে কোনওদিন বিশ্বাস করার সুযোগ থাকে, তাহলে অবশ্যই পছন্দের পুরুষকে ফের বিশ্বাস করে ভালবাসবেন তিনি।

আরো খবর »