বিএনপির গুম-খুনের রেকর্ড কেউ ভাঙতে পারবে না

Feature Image

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির গুম, খুন ও সন্ত্রাসের নজিরবিহীন রেকর্ড কেউ ভাঙতে পারবে না।

শুক্রবার দুপুরে ফেনীর মহিপালে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত এক সপ্তাহ ধরে সরাসরি মনিটরিং করছেন ঈদ যাত্রা যেন নিরাপদ হয়। যাতে মানুষ নিরাপদে নির্বিঘ্নে বাড়ি গিয়ে আত্মীয়-স্বজন ও প্রতিবেশীদের নিয়ে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার বেশি বেশি সতর্ক অবস্থানে থাকার কারণে ঘরমুখো মানুষের এবারের ঈদ যাত্রা ছিল অন্যবারের তুলনায় আরো স্বস্তিদায়ক। মাঠে সচেষ্ট ছিল প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, হাইওয়ে পুলিশ, সড়ক বিভাগের প্রকৌশলীরা, আনসার-ভিডিপি ও কমিউনিটি পুলিশ। নিরাপদ ঈদ যাত্রা নিশ্চিত করায় তিনি প্রতিটি দপ্তরকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি বলেন, দেশের বন্যার্ত এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাঘাট মেরামত করতে ইতোমধ্যে সরকার অর্থ বরাদ্দ দিয়েছেন। সেসব ক্ষতিগস্ত রাস্তাঘাট মেরামত করতে ও বন্যার্ত এলাকার রাস্তায় চলাচল সচল রাখতে সড়ক বিভাগের প্রকৌশলীরা সর্বদা মাঠে রয়েছে। রাস্তায় মোবাইল টিম রয়েছে। যেখানে গর্ত, সেখানে মেরামতের কাজ চলছে। যেন ঈদে ঘরমুখো মানুষের বাড়ি ফিরতে কষ্ট না হয়।

ওবায়দুল কাদের গণমাধ্যমকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, পত্র-পত্রিকায় ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সড়কের যেসব চিত্র ওঠে এসেছিল সে জন্য আমাদের কাজ করতে আরো সহজ হয়েছে।

তিনি বলেন, বাড়ি ফেরার আজ শেষ দিন। নির্বিঘ্নে নিরাপদে সাধারণ মানুষের চলাচল নিশ্চিত করতে সর্বোপরি সব ধরনের বিপদ মোকাবিলা করতে আমরা রাস্তায় আছি।

চলন্ত বাসে ধর্ষণের পর রূপা হত্যার ঘটনা প্রসঙ্গে সেতুমন্ত্রী বলেন, যে মেয়েটির স্বপ্ন ছিল অ্যাডভোকেট হবে, দুঃখী মানুষকে আইন সেবা দিবে। সেই মেয়েটি নিজেই আইনের আশ্রয় নেওয়ার আগে মর্মান্তিকভাবে মৃত্যু ঘটেছে। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তারা সমাজের খুবই খারাপ লোক। এ ধরনের খারাপ মানুষ যাতে গাড়ির ড্রাইভার-হেলপার হতে না পারে সে ব্যাপারে গাড়ির মালিকদের সচেষ্ট থাকতে হবে। ধর্ষণের পর রূপা হত্যার ঘটনাটি অত্যন্ত পাশবিক ও নৃশংস ঘটনা।

তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, এ ধরনের ঘটনা যাতে সমাজে পুনরাবৃত্তি না ঘটে সে ব্যাপারে আমাদের সকলকে সক্রিয় থাকতে হবে।

এ সময় চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত নির্বাহী প্রকৌশলী মো. সাহাব উদ্দিন ও ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজসহ স্থানীয় সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

আরো খবর »