‘রোহিঙ্গা নির্যাতন ও দেশের সামাজিক অবস্থায় পার্থক্য নেই’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: রোহিঙ্গাদের ওপর অত্যাচার আর বাংলাদেশের সামাজিক অবস্থার মধ্যে কোনো পার্থক্য নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, বর্তমানে সমাজবিরোধীরাই সমাজের কর্তা হয়ে গেছেন। রাস্তায় নেমে অবরোধ না করলে কেউ নিরাপদ থাকবে না।

মঙ্গলবার মাশরূপা আক্তার রূপাসহ দেশব্যাপী নারী ও শিশু হত্যার প্রতিবাদে রাজধানীতে আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

জাতীয়তাবাদী মহিলা দল আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি বলেন, দেশে ধর্ষণ জ্যামিতিকহারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। ‘রুপাকে হত্যার পৈচাশিকতা মানুষ হিসেবে ভাবতে কষ্ট হয়। হাজার হাজার রুপা প্রতিদিন নির্যাতিত হচ্ছে। যা বর্ণনা করার ভাষা নেই।’

এসব ঘটনা বর্তমান সরকারের দুঃশাসনের প্রতিফলন উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘নারী-শিশু নির্যাতন মহামারী আকার ধারণ করেছে। যারা নারী-শিশুদের নিরাপত্তা দিতে পারে না, তারা কল্যাণকর সরকার নয়।’

রিজভী বলেন, ‘মিয়ানমার সরকার পরিকল্পিতভাবে জাতিগত নির্মূল অভিযান চালাচ্ছে। অং সান সু চিকে যখন বন্দি রাখা হয়েছিল, তখন গণতন্ত্রকামী মানুষ তাকে সমর্থন করেছিল। কিন্তু তিনিও রোহিঙ্গা মুসলিম নির্যাতনকে সমর্থন দিচ্ছেন।’

মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন, মহিলা দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেত্রীরা।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »