বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন করবে সরকার

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

নাটোর: তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বর্তমানে বিপদসীমার ১১ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে আত্রাই নদীর পানি। বন্যার পানি কমায় আশ্রয় কেন্দ্র থেকে বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে পানিবন্দি মানুষ। বন্যায় যাদের বাড়িঘর ভেঙে গেছে তাদের পুনর্বাসন করবে সরকার।

মঙ্গলবার নাটোরের সিংড়া উপজেলা কৃষি হল রুমে বন্যা পরবর্তী পুনর্বাসন সংক্রান্ত জরুরি মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সভায় জানানো হয়, সিংড়া উপজেলা ও পৌরসভায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত গ্রামের সংখ্যা ১২১টি। ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সংখ্যা ৯ হাজার ৩২০টি। ক্ষতিগ্রস্ত লোক সংখ্যা ৪১ হাজার ৯৪০ জন। আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছিলো ২৭টি বর্তমানে ১৬টি চালু আছে। আশ্রিত পরিবারের সংখ্যা ১ হাজার ৪২টি বর্তমানে ৪৬১টি। আশ্রিত লোক সংখ্যা ৪ হাজার ২৯০ জন বর্তমানে এক হাজার ৭২৩ জন। ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ির সংখ্যা ৯ হাজার ৩২০টি। ফসলের ক্ষতি ১১ হাজার ৮১০ হেক্টর। ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ ৪৮০ মিটার। বন্যায় ৯০২টি পুকুর ভেসে গেছে।

অপরদিকে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের জন্য বরাদ্দ পাওয়া গেছে জিআর চাল ২৫০ মেট্টিক টন, ব্যয় হয়েছে ২৪০ মেট্টিক টন অবশিষ্ট রয়েছে ১০ মেট্টিক টন। নগদ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে ১০,৪০,০৫০ টাকা, ব্যয় হয়েছে ১০,২০,০০০ টাকা, অবশিষ্ট রয়েছে ২০,০৫০টাকা।

এছাড়া বেসরকারি উৎস হতে চাল, শুকনো খাবার ৩, ৮৩০ প্যাকেট, নগদ ৩ লাখ টাকা বিতরণ সম্পন্ন হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসিফ মাহমুদের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় উপজেলা চেয়ারম্যান শফিকুল ইসলাম শফিক, সিংড়া পৌর মেয়র জান্নাতুল ফেরদৌসসহ জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »