জঙ্গি আস্তানায় মিললো ৭ মরদেহ

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: রাজধানীর মিরপুরে দারুস এলাকায় ‘জঙ্গি আস্তানা’য় সাতটি মাথার খুলি (স্কাল) পড়ে আছে বলে জানিয়েছেন র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজীর আহমেদ।

আজ বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে সাংবাদিকদের এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‍্যাব ডিজি।

বেনজীর আহমেদ বলেন, গতকাল মঙ্গলবার রাতে পৌনে ১০টার দিকে বাড়িটির পঞ্চমতলায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করা হয়েছিল। তিনটি বিস্ফোরণের ফলে পঞ্চম তলায় আগুন ধরে যায়। এরপর সেই ফ্লোরের দু-তিন ফুট এলাকা গর্ত হয়ে যায়। সেটা দিয়ে রাসায়নিক পদার্থ চারতলায় পড়ে আগুন ধরে যায়। বিস্ফোরণের কারণে ভবনটির গ্লাস ফেটে চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। সকাল থেকেই ভবনটিতে ফায়ার সার্ভিস, বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল কাজ করেছে। পঞ্চম তলার ওই ফ্ল্যাটে ৫৫ থেকে ৬০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা এখনো আছে। তবে চতুর্থ তলায় পানি দিয়ে শীতল করার চেষ্টা করা হচ্ছে। পঞ্চম তলায় পানি ব্যবহার করা যাচ্ছে না। কারণ এতে আলামত নষ্ট হতে পারে।

র‍্যাব ডিজি বলেন, সাতটি স্কাল দেখে সাতটি মৃতদেহ শনাক্ত করেছি। সবগুলোই পুড়ে গেছে।’ তিনি জানান, নিহত সাতজনের মধ্যে একজন জঙ্গি আবদুল্লাহ, দুজন তাঁর সন্তান, দুজন তাঁর স্ত্রী। বাকি দুজন তাঁর কর্মচারী বা অন্য কেউ হতে পারে।

ব্রিফিংয়ে বেনজীর জানান, জঙ্গি আবদুল্লাহ ২০০৫ সাল থেকে জেএমবির জঙ্গি তৎপরতার সঙ্গে সম্পৃক্ত। সংগঠনে তাঁর পদ ছিল আল আনসার। তাঁর কাজ ছিল বিভিন্ন জঙ্গিকে আশ্রয় দেওয়া, অর্থসহায়তা করা। বাসাটি জঙ্গি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হতো। নিহত জঙ্গি নেতা সারওয়ার, তামিমসহ জঙ্গিরা এই বাসায় থাকত।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »