অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়নের জন্য অর্থনৈতিক অঞ্চল খুবই গুরুত্বপূর্ণ

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

রাজশাহী থেকে ওবায়দুল ইসলাম রবি: রাজশাহী অঞ্চলের একটি বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার জন্য প্রয়োজনীয়উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে, যা বর্তমানে বিদ্যমান কৃষি সম্ভাব্য সর্বোত্তমব্যবহারের মাধ্যমে জনগণের অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়নে প্রধান ভূমিকা রাখে।

বেসরকারি মালিকানাধীন জমি ন্যায্য মূল্যে ক্রয় করা হবে। যা কৃষি ভিত্তিক শিল্পপ্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে, জকিগঞ্জের পবা উপজেলারজয়কৃষ্ণপুর, মারি, বালনগর, ভবানীপুর ওকৈরা এলাকায় ২০৫ একর জমির উপর জোন স্থাপন করা হবে।

বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন (বিসিক) এর আঞ্চলিক পরিচালক প্রকৌশলী আজহারুল ইসলাম বলেন, ২০১৯ সালের মধ্যে প্রয়জোনিয় প্রক্রিয়াসম্পন্ন হওয়ার পরেই গার্মেন্টস কারখানাসহ ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠানস্থাপন করা হবে। এবং অল্প সময়ের মধ্যে, অবকাঠামো উন্নয়ন কাজ শুরু হবে।

প্রধানত, বিদেশীদের এই বিনিয়োগে উৎসাহিত করাতে হবে বলে তিনি জানান।ইতোমধ্যে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এবং অর্থনৈতিক অঞ্চল কমিটি সাইটনির্বাচন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। তদনুসারে  জেলার প্রশাসন ভুমি মন্ত্রণালয়কে স্থান নির্বাচন রিপোর্ট জমা দেয়া হযেছে।

রাজশাহী চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি মনিরুজ্জামান মনি বলেন, জোনটি স্পষ্টতই বিশাল কর্মসংস্থান সৃষ্টি করবে এবং শিল্প স্থাপনের জন্য অনেক বিনিয়োগকারীকে আকর্ষণ করবে। এছাড়া বিদেশী বিনিয়োগকারীদের পাশাপাশি স্থানীয়েদেরও উৎসাহিত করতে হবে।

এ বিষয়ে বিদেশী অনেকেরই আমাদেরসাথে যোগাযোগ করেছে। এর ফলে স্থানীয় ও বিদেশী বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ভাল সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে। এই অঞ্চলের অর্থনৈতিক ভিত্তিটিকে শক্তিশালী করা হবে যা অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে উন্নত করতে অনেক অবদান রাখবে। জোন অঞ্চলের ছোট প্রকৌশল ও গার্মেন্টস ফ্যাক্টরি স্থাপনের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। উদ্যোক্তাদের জন্য ২০ শতাংশ বিনিয়োগের দাবি জানিয়েছেন চেম্বার নেতা মনিরুজ্জামান।

জেলা পরিষদেও চেয়াররম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার বলেন, দেশটির কৃষিভিত্তিক শিল্পের ৭৬ শতাংশ কাঁচামাল সরবরাহের পাশাপাশি বর্তমানে দেশের মোট খাদ্যের চাহিদা পূরণের ৫২ শতাংশ পূরণ করা হয়েছে। দুর্ভাগ্যবশত, এখানে কোন বড় শিল্প ইউনিট নেই। আলু ফ্লেক্সে আন্তর্জাতিক চাহিদা রয়েছে এবং এর উৎপাদন প্রযুক্তি অপেক্ষাকৃত সহজ এবং শ্রম নিবিড়।

রাজশাহী সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন বলেন,জীবিকা ও জীবনযাত্রার মান উন্নয়নের পাশাপাশি অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়নের জন্য অর্থনৈতিক অঞ্চল খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমান ক্ষমতার যথাযথ ব্যবহারের মাধ্যমে রাজশাহীর অর্থনৈতিক অবস্থার উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বর্তমান সরকার অত্যন্ত ইতিবাচক দিক। এবং অর্থনৈতিক জোন প্রকল্পটিকে একটি সংক্ষিপ্ত সময়ের মধ্যে বাস্তবায়িত করা হবে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »