কুষ্টিয়ায় আ.লীগের সংঘর্ষে দুইজন নিহতের ঘটনায় মামলা

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম

কুষ্টিয়া: জেলার সদর উপজেলার ঝাউদিয়া ইউনিয়নের বাখইল গ্রামে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষে দুইজন নিহত হওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে।

শুক্রবার সকালে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা কেরামত আলীকে প্রধান আসামি করে এই মামলা দায়ের করা হয়। প্রধান আসামিসহ ১৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার পরিদর্শক রতন শেখ জানান,  বৃহস্পতিবার দুপুর ৩০ মিনিটের দিকে ইবি থানার বাখাইল গ্রামে আওয়ামী লীগ নেতা চেয়ারম্যান কেরামত ও মন্ডল গ্রুপের লোকজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ ঘটনায় ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কেরামত আলীর সমর্থক আজিজুল হক মন্ডল ও সাবেক চেয়ারম্যান বখতিয়ার হোসেনের লোকজনদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। রক্তক্ষয়ী এই গ্রাম্য কাইজা (সংঘর্ষ) চলাকালে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মন্ডল গ্রুপের বিল্লাল হোসেন ও কেরামত চেয়ারম্যান পক্ষের এনামূল নামে দুইজন ঘটনাস্থলে নিহত হয়। ভয়াবহ এ সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হন। এদেরকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের মধ্যে নজরুল ডাকালিসহ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

ময়নাতদন্তের জন্য লাশ কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। পরিস্থিতি এখন পুলিশের নিয়ন্ত্রণে। তবে উভয় পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »