মেধাবী ছাত্র জাহিদকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

Feature Image

একটি কিডনি দ্রুত সংযোজন করা না হলে অকালেই ঝড়ে যাবে এই মেধাবী ছাত্রের জীবন।
দরিদ্র মেধাবী ছাত্র জাহিদকে বাচাঁতে এগিয়ে আসার আহবান। তার দুটি কিডনিই নষ্ট হয়ে গেছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, জাহিদের অন্তত একটি কিডনি দ্রুত সংযোজন করা না হলে অকালেই ঝড়ে যাবে এই মেধাবী ছাত্রের জীবন। আর এতে খরচ হতে পারে ১৫ লাখ থেকে ১৮ লাখ টাকা। কিন্তু সহায় সম্বল বিক্রি করেও এত টাকা জোগাড় করা সম্ভব নয় ভেবে নিরুপায় হয়ে চরম হতাশায় দিনাতিপাত করছে জাহিদের পরিবার। জাহিদ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ভাদালিয়া বাজার সংলগ্ন স্বস্তিপুর গ্রামের গোলাম রব্বানীর ছেলে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিকানা: মো জাহিদুল ইসলাম, সমাজ কর্ম বিভাগ।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়, শিক্ষাবর্ষ: ২০১৪-১৫ সেশন। সহিদ শামসুজ্জোহা হল।
বড় আশা নিয়ে জাহিদ ভর্তি হয়েছিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে। পড়াশুনা শেষ করে কিছু একটা করে অভাবের সংসারের চাকা ঘুরানোর স্বপ্ন দেখেছিল সে। কিন্তু চিকিৎসকদের কাছে থেকে বিস্তারিত জানার পর থেকে সেই স্বপ্ন এখন তার দু:স্বপ্নে পরিণত হতে চলেছে। সহায় সম্বল বিক্রি করেও যখন ছেলের চিকিৎসার খরচ যোগাড় হবে না এমনতাবস্থায় জাহিদের অসহায় বাবা মা ছেলেকে বাচাঁতে আর্থিক সাহায্যের জন্য ঘুরছে সমাজ প্রতিদের দ্বারে দ্বারে।

আর অসুস্থ জাহিদ এক দিন যে দুটি চোখে স্বপ্ন দেখেছিল সে দুটি চোখের আলো আস্তে আস্তে কমে যেতে থাকায় সে এখন নিরবে এক এক করে দিন গুনে চলেছে। শুয়ে বসে চোখেরজলে বুক ভাসিয়ে সারাক্ষন একই চিন্তা করছে সে বাঁচবে কিনা! তাহলে কি সত্যিই টাকার অভাবে জাহিদের চিকিৎসা হবে না?

জাহিদের পরিবার জানায়, বেশ কিছু দিন আগে থেকে জাহিদ দুচোখে কম দেখতে শুরু করে। পরে স্থানীয় চিকিৎসকদের দেখানোর পরও কোন পরিবর্তন না হয়ে আরো খারাপ অবস্থা হলে তাকে ঢাকা নিয়ে চুক্ষু বিশেষজ্ঞকে দেখানো হয়। সেখান চোখের কোন সমস্যা নেই জানিয়ে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা কিডনি হাসপাতালে দেখানোর পরামর্শ দেন। জাহিদ কে কিডনি হাসপাতালে নিয়ে পরিক্ষা- নিরক্ষার পর চিকিৎসকরা নিশ্চিত করেন জাহিদের দুটো কিডনি নষ্ট হয়ে গেছে। তবে তার অন্তত একটি কিডনি দ্রুত সংযোজন করতে হবে এবং এতে ১৫ লাখ থেকে ১৮ লাখ টাকা খরচ হবে বলে জানান চিকিৎসকরা। এত গুলো টাকা জাহিদের দরিদ্র পরিবারের পক্ষ জোগাড় করা সম্ভব নয় এ জন্য জাহিদের বাবা- মা’য়ের করুন আহাজারি দেখে চোখেরজল ঝড়াচ্ছেন প্রতিবেশীরাও।
প্রতিবেশী কয়েকজন বলেন, জাহিদের মত এত ভাল এবং এত ভদ্র স্বভাবের ছেলে এলাকায় পাওয়া খুবই মুস্কিল। অথচ এই ছেলেটি আজ অর্থাভাবে চিকিৎসার অভাবে অকালেই চির বিদায় নেবে এটা খুবই কষ্ট দায়ক। এলাকার অনেকেই চিকিৎসার সাহায্যে এগিয়ে আসছেন কিন্তু চিকিৎসার ব্যয় অনেক বেশী এবং তা খুব দ্রুত প্রয়োজন তাই জাহিদ কে বাচাতে হৃদয়বান মানুষের কাছে সাহায্যের অনুরোধ জানিয়েছেন জাহিদের পরিবার ও প্রতিবেশীরা।

আপনারা চাইলে বিকাশ করতে পারেন,
জাহিদের বাবার মোবাইল ও বিকাশ নাম্বার 01719970959 (পার্সনাল)
ইসলামী ব্যাংকের একাউন্ড নম্বর : (রব্বানী ইঞ্জিনিয়ার ওয়ার্কশপ চলতি হিসাব নং ২৭৬৮ ইসলামী ব্যাংক, কুষ্টিয়া শাখা)।

আরো খবর »