তিন মন্ত্রণালয় ইসির অধীনে আনাসহ ইসলামী ফ্রন্টের ১০ প্রস্তাব

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: স্বরাষ্ট্র, সংস্থাপন ও স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অধীনে আনাসহ ১০ দফা প্রস্তাব দিয়েছে ইসলামী ফ্রন্ট। রোববার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে অনুষ্ঠিত সংলাপে দলটি কমিশনকে এ প্রস্তাব দেয়।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদার সভাপতিত্বে সকাল ১১টার পর থেকে শুরু হওয়া সংলাপে অংশ নেয় দলটির ১২ জন প্রতিনিধি। সংলাপ শেষে দলের মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিন সাংবাদিকদের কাছে তাদের প্রস্তাবের সার-সংক্ষেপ তুলে ধরেন।

প্রস্তাবগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে, নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সকল আইন বাংলায় প্রণয়ন, আইনি কাঠামো পর্যালোচনা করে তাতে প্রয়োজনীয় সংস্কার ও সংশোধন আনা, প্রবাসীদের ভোটের সুযোগ নিশ্চিত করা, নির্বাচনী এলাকায় সেনা মোতায়েন এবং ইসির তত্ত্বাবধানে প্রত্যেক নির্বাচনী এলাকায় প্রার্থীদের প্রকাশ্য নির্বাচনী বিতর্কের ব্যবস্থা করা।

রোববার বিকেল তিনটায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদশ-এর সঙ্গে ইসি’র সংলাপ হবে। এছাড়া ১২ সেপ্টেম্বর সকালে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস, বিকেলে ইসলামী ঐক্যজোটের সঙ্গে সংলাপে বসবে কমিশন। ১৪ সেপ্টেম্বর সকালে কল্যাণ পার্টি, বিকেলে ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশ, ১৭ সেপ্টেম্বর সকালে ঐক্যবদ্ধ নাগরিক আন্দোলন, বিকেলে বাংলাদেশ জাতীয় পার্টি, ১৮ সেপ্টেম্বর সকালে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি (বাংলাদেশ ন্যাপ), বিকেলে প্রগতিশীল গণতান্ত্রিক দল (পিডিপি), ২০ সেপ্টেম্বর সকালে গণফ্রন্ট, বিকেলে গণফোরাম, ২১ সেপ্টেম্বর সকালে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ, বিকেলে ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) সঙ্গে ইসির সংলাপ হবে।

তবে বড় দলগুলোর সঙ্গে সংলাপের তারিখ এখনও ঠিক হয়নি।

এর আগে সুশীল সমাজের প্রতিনিধি এবং গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের সঙ্গে সংলাপের পর গত ২৪ আগস্ট থেকে নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ শুরু করে ইসি। ৪০টি নিবন্ধিত দলের মধ্যে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত ৫টি দলের সঙ্গে সংলাপ শেষ করেছে কমিশন।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »