যৌনাচার করতে না পারায় জেলে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন রাম রহিম!

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক: ধষর্ণের অভিযোগ আলোচনায় আসেন ভারতের ধর্মগুরু বাবা রাম রহিম। এরপর সেই ধর্ষণ প্রমাণিত হওয়ায় ২০ বছর জেল হয়েছে তার।

জেলবন্দি সেই ধর্ষক ধর্মগুরু নাকি জেলে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন। ডায়াবেটিসের সমস্যা তো রয়েছেই এছাড়াও ডেরা সাচা সৌদা’র প্রধান জেলে বসে ছটফট করছেন। জেলে রাম রহিমকে পরীক্ষা করে একথাই জানিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

গত দু’সপ্তাহ ধরে রোহতকের জেলে বন্দি রয়েছেন গুরমিত রাম রহিম সিং। রাম রহিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে জেল কর্তৃপক্ষ শনিবার একদল চিকিৎসককে ডেকে পাঠান। সেই দলে ছিলেন একজন মনোরোগ বিশেষজ্ঞও।

সূত্রের খবর, ধর্ষক বাবা ডেরা ছেড়ে জেলে ঢোকার পর থেকেই অসুস্থ হয়ে পড়েছে। কারণ সে ‘সেক্স অ্যাডিক্ট’। জেলে বসে শারীরিক সুখ থেকে বঞ্চিত হয়েই ধর্ষক বাবা ছটফট করছে। এই অবস্থায় রাম রহিমের চিকিৎসার প্রয়োজন। দেরি হলে মারাত্মক সমস্যা হতে পারে বলে চিকিৎসকেরা মন্তব্য করেছেন।

পাশাপাশি এটা এখনও স্পষ্ট নয় যে বাবা রাম রহিম মাদকাসক্ত কিনা। জানা গেছে, ১৯৮৮ সাল পর্যন্ত রাম রহিম মদ্যপান করত। এখন মদ না খেলেও এনার্জি ড্রিঙ্ক ও বিদেশ থেকে আনা সেক্স টনিক নিত রাম রহিম। এমনটাই দাবি প্রাক্তন ডেরা সদস্য গুরদাস সিং তুরের।

প্রসঙ্গত, জেল বন্দি হওয়ার পরে পালিতা কন্যা হানিপ্রীতকে তার সঙ্গে রাখার আর্জি জানিয়েছিল গুরমিত রাম রহিম সিং। বলেছিলেন, নিয়মিত হানিপ্রীতের কাছ থেকেই ম্যাসাজ নেন তিনি। তাহলে কি যৌন প্রবৃত্তি চরিতার্থ করতেই দত্তক নেওয়া মেয়ে হানিপ্রীতকে সঙ্গে রাখতে চেয়েছিলেন রাম রহিম! এখন এই প্রশ্নই উঠতে শুরু করেছে! সূত্র: ওয়ান ইন্ডিয়া

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »