ছাত্রীকে ‘মারধরের পর প্রেমিকের ধর্ষণ’

Feature Image

স্বাধীনবাংলা২৪.কম

ঢাকা: কথিত প্রেমিকের বিরুদ্ধে দল বেঁধে মারধরের পর এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানীর দারুসসালাম এলাকায়। সোমবার রাতে নির্যাতিত ছাত্রীটিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভোগী ছাত্রীর অভিযোগ, সোহান ও তার বন্ধু পারভেজসহ পাঁচজন তাকে মারধর করেছে। এরপর সোহান তার ওপর পাশবিক নির্যাতন চালায়।

ওই ছাত্রীর বাবার দেওয়া তথ্যমতে, মেয়েটি স্থানীয় একটি স্কুলে দশম শ্রেণীতে পড়ে। গত রবিবার সকাল ১১টার দিকে একই এলাকার রতন মিয়ার ছেলে সোহান তাকে ডেকে নিয়ে যায় স্থানীয় বালুর মাঠ এলাকায়। সেখানে ছিল সোহানের আরও চার বন্ধু। তারা মেয়েটিকে মারধর করে পাশের একটি ভবনের দ্বিতীয়তলায় নিয়ে যায়। সেখানে সোহান তাকে ধর্ষণ করে। পরে ছাত্রী তার বোনের বাসায় গিয়ে বিষয়টি খুলে বলে।

তার বোন বিষয়টি বাবাকে জানালে রবিবার রাতে তাকে স্থানীয় একটি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

এদিকে অপর একটি সূত্র জানায়, সোহানের সঙ্গে মেয়েটির প্রেমের সম্পর্ক ছিল।

থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, পাশবিক নির্যাতনের ব্যাপারে অভিযোগ জানাতে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় ছাত্রীর বাবা দারুসসালাম থানায় যান। বিষয়টি জানতে পেরে পুলিশ তাকে সরকারি হাসপাতালে ভর্তির পরামর্শ দেয়।

এরপর মেয়েটিকে প্রথমে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতাল এবং রাতে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ ব্যাপারে দারুসসালাম থানার এসআই এলিশ মাহমুদ বলেন, খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। মেয়েটিকে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এরপর ভুক্তভোগী পরিবার মামলা করতে এলে মামলা নেওয়া হবে।

স্বাধীনবাংলা২৪.কম/এমআর

আরো খবর »