অপহৃত ফাতেমা বেগমকে উদ্ধারে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ

Feature Image

জেলা প্রতিনিধি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম
খাগড়াছড়ি থেকে মোঃ আবদুর রউফ;
খাগড়াছড়ির গুইমারায় যাত্রীবাহী বাস থেকে অপহৃত এক সন্তানের জননী গৃহবধূ ফাতেমা বেগমকে উদ্ধারে ৭২ ঘন্টার আল্টিমেটাম দিয়েছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ।

মঙ্গলবার সকালে খাগড়াছড়ি পৌর শাপলা চত্বরে মানববন্ধন উত্তর বিক্ষোভ সমাবেশে ফাতেমা বেগমকে অপহরণের জন্য ইউপিডিএফকে দায়ী করে এ আল্টিমেটাম দেন বাঙালি ছাত্র পরিষদের নেতৃবৃন্দ।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় সভাপতি আব্দুল মজিদ, খাগড়াছড়ি জেলা শাখার সভাপতি লোকমান হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সাহাদাত হোসেন ও অপহৃত গৃহবধূ ফামেতা বেগমের স্বামী মোঃ নাজমুল হোসেন।

মানববন্ধন থেকে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ বানিজ্য বন্ধ এবং নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল করে পুন:রায় নিয়োগ পরীক্ষা নেওয়ার দাবী জানান।
মানববন্ধন শেষে একটি মিছিল শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (৮ সেপ্টেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে জেলার গুইমারার বাইল্যাছড়ির বাইল্যাছড়ি সাইনবোর্ড এলাকায় ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট-ইউপিডিএফ‘র ১৫/১৬ জন কর্মী বাসের গতিরোধ করে ও স্বামীর পাশে বসা ফাতেমা বেগমকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়।

গুইমারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা যোবাইরুল হক জানান, ঈদের ছুটি শেষে স্ত্রী ফাতেমা বেগমকে নিয়ে বাসযোগে (বিছমিল্লাহ পরিবহন) কর্মস্থল চট্টগ্রাম যাচ্ছিছিলেন, স্বামী মোঃ নাজমুল হোসেন।

অভিযোগ পাওয়ার পরপরই সেনাবাহিনী পুলিশ অপহৃত নারীকে উদ্ধারে সাইনবোর্ড, রাবারবাগানসহ আশেপাশের এরাকায় ব্যাপক তল্লাশী চালাচ্ছে।

মোঃ নাজমুল হোসেন জানান, সে পাঁচ বছর আগে খাগড়াছড়ির পানছড়ির লোগাং-এর বজেন্দ্র মাষ্টার পাড়ার ফলেন্দ্র ত্রিপুরার মেয়ে নয়না ত্রিপুরাকে ভালোবেসে বিয়ে করে।
বিয়ের পুর্বেই স্বেচ্ছায় ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করে নয়না ত্রিপুরা ফাতেমা বেগম নাম ধারন করে। এরপর তারা পরস্পর বসবাস করে আসছে। তাদের চার বছরের একটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

Loading...

আরো খবর »