বিপ্লবী বাঘা যতীন এর ১০২তম মৃত্যুবার্ষিকীতে নাগরিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত

Feature Image

কুষ্টিয়া ঃ ৭১’এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি কয়া শাখার আয়োজনে বিপ্লবী বাঘা যতীন এর ১০২তম মৃত্যুবার্ষিকী প্রস্তাবিত বাঘা যতীন কলেজে মিলনায়তনে নাগরিক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে বেলা ১১টায় ৭১;এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি কয়া শাখার সভাপতি খান জালাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তৃতা করেন সাবেক বিচারপতি ও ৭১ এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা মুক্তিযেুাদ্ধা শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক।

 

বিশেষ অতিথি থেকে বক্তৃতা করেন ৭১’এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী মুকুল, শহীদ বুদ্ধিজীবি মুনির চৌধুরী তনয় আসিফ মুনির তন্ময়-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ৭১’এরন ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি। আরো বক্তব্য দেন কুমারখালী নাগরিক কমিটির সভাপতি আকরাম হোসেন, ৭১ এর ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির কুমারখালী শাখার সভাপতি ও অনুষ্ঠান সমন্বয়কারী এটিএম আবুল মনছুর মজনু, কুমারখালী পাবলিক লাইব্রেরীর সম্পাদক মমতাজ বেগম, অধ্যাপক রাজিবুল আলম, শহীদ গোলাম কিবরিয়া ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ, নাট্যকার ও কুমারখালী ইতিহাস ঐতিহ্য সংস্কৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লিটন আব্বাস ও কয়া কলেজের অধ্যক্ষ হারুন অর রশিদ। স্বাগত বক্তব্য দেন বাঘা যতীন থিয়েটারের সভাপতি আবু সালেহ।

 

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন রাশেদ। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে বাঘা যতীন থিয়েটার স্কোয়াট নাটক: অগ্নিযুগ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশনা করেন। বক্তৃতায় বিট্রিশ বিরোধি বিপ্লবী নেতা ও ভারতবর্ষের মুক্তিকামী বীর বিপ্লবীদের কথা উঠে আসে প্রসঙ্গত বাঘা যতীনের ইতিহাস, কর্মখান্ড ও জীবনদান তথা বর্তমানে বাঘা যতীনের মুল্যায়নের কথাও তুলে ধরেন। কয়া কলেজকে বাঘা যতীন কলেজ, বাঘা যতীন কমপ্লেক্স ও কয়া বাজারে বাঘা যতীন পার্ক নির্মাণের কথাও উঠে আসে। বাঘা যতীনের সত্যিকার মূল্যায়ন করতে হলে এবং বর্তমান প্রজন্ম তথা শিক্ষাথীদের মাঝে বাঘা যতীনের ত্যাগের ইতিহাস ছড়াতে হলে পাঠ্যসূচিতে বাঘা যতীনের ইতিহাস অন্তর্ভূক্ত করতে হবে।

আরো খবর »