ওবায়দুল কাদের আ’লীগের ফেরিওয়ালা

Feature Image

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে জাকির হোসেন পিংকুঃ  বিএনপির জেষ্ঠ্য যুগ্ম মহাসচিব এ্যাড. রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, যখন কক্সবাজারে রোহিঙ্গাদের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করতে গেলেন বিএনপির নেতৃবৃন্দ তখন আওয়ামী লীগের পুলিশ বাহিনী আমাদের সেখানে যেতে বাধা দিয়েছে।

 

অথচ আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন বিএনপি নাকি ত্রাণ নিয়ে যায়নি। তাঁর বক্তব্যে মনে হয়, তিনি আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক নন, তিনি আ’লীগের ফেরিওয়ালা। অথচ গণমাধ্যমে গত কয়েকদিন ধরে প্রচার হচ্ছে, কক্সবাজারে বিএনপি অফিস ঘেরাও করে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য নিয়ে যাওয়া ২২ ট্রাক ত্রাণ আটকে দেওয়া হয়েছে।

 

সরকার বিএনপির ২২ ট্রাক ত্রান আটকে দিয়ে অমানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন। অথচ তা নিয়ে ওবায়দুল কাদের মিথ্যা বলছেন। দূর্দশাগ্রস্থ মানুষের ত্রাণ নিয়ে তিনি তামাশা করছেন। শনিবার দুপুরে চাঁপাইনবাগঞ্জ শহরের সন্ধ্যা কমিউনিটি সেন্টারে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা ও পৌর বিএনপি আয়োজিত দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। সদর উপজেলা শাখা বিএনপির সভাপতি তসিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ও পরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, অনিয়ম ও দুর্নীতির আশঙ্কায় প্রশাসনের মাধ্যমে বিএনপি রোহিঙ্গাদের ত্রাণ পাঠাবে না।

 

ত্রাণ বিতরণের প্রয়োজনীয় জনবল ও দক্ষতা বিএনপির আছে। বিএনপিকে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে ত্রান বিতরণ করতে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়কমন্ত্রী ওবাইদুল কাদেরের গত শুক্রবারের পরামর্শ প্রত্যাখ্যান করে রিজভী আরো বলেন, প্রশাসনের মাধ্যমে ত্রান পাঠালে অনিয়ম-দুর্নীতির আশঙ্কা আছে। বন্যায় হাওড়ে ত্রান বিতরণে দুর্নীতির প্রসঙ্গ টেনে রিজভী বলেন, প্রশাসনের মাধ্যমে ত্রান পাঠালে ক্ষমতাসীনরা লুটপাট করবে। তিনি বিএনপি নেতাকর্মী নিপীড়ন ও বর্তমান সরকারের উন্নয়নের নামে বিভিন্ন কর্মকান্ডেরও কড়া সমালোচনা করেন। তিনি আগামীতে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনের সাবেক এমপি বিএনপির যুগ্ন মহাসচিব হারুনুর রশীদের নেতৃত্বে দলের পক্ষে মিলেমিশে কাজ করার আহবান জানান।

 

সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন, বিএনপির কেন্দ্রীয় যুগ্ন মহাসচিব চাঁপাইনবাবগজ্ঞ সদর আসনের সাবেক সাংসদ হারুনুর রশীদ, সাবেক সাংসদ ও জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দা আসিফা আশরাফি পাপিয়াসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। সম্মেলন চলাকালে ওই এলাকায় জেলা জেলা বিএনপির সভাপতি রফিকুল ইসলাম টিপুর নেতুত্বে সমবেত বিএনপি’র একাংশের নেতা-কর্মীরা বিএনপির যুগ্ন মহাসচিব হারুনুর রশীদ ও জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দা আসিফা আশরাফি পাপিয়ার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে সম্মেলন স্থলে যাওয়ার চেষ্টা করলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে। পরে নিকটের অক্ট্রয় মোড় সংলগ্ন এলাকা থেকে ২টি অবিস্ফোরিত ককটেল উদ্ধার করা হয়।

আরো খবর »