সাহিত্য সংস্কৃতি

  • মাকড়শা

    প্রতিদিনে জাল বুনে নিজের খাবারের তরে, বাচার আসায় ওদের আছে এ ধরাতলে। একটু বাতাস এলে ওদের জালটি যায় ছিড়ে, বাচার জন্য ছুটে চলে অন্য কোন স্থানে। পূর্ণ বয়সে ডিম পাড়ে নতুন বাচ্চাদানে, নিজের বাচ্চা বুক কুড়েখায় মায়ের দেহটারে। আত্মদানের বলিদানে বংশ পরাক্রমায়, আজও ওরা জাল বুনে জীবনের প্রয়োজনে।

  • ফয়সাল হাবিব সানি’র ছোট কবিতা `বিষণ্ন কাব্য’

    কোনো একদিন পড়ন্ত অপরাহ্নে বিষণ্নতার চোখে চোখ রেখে বলেছিলাম, `ভালোবাসি’! সেই থেকে বিষণ্নতাও অামায় ভালোবেসে ফেললো- অামি অার সেই বিষণ্নতাকে এড়িয়ে চলতে পারি না এখন- অামার সবুজজুড়ে এখন কেবলই ধ্বংসস্তূপের মতো মৃত স্বপ্নের অানাগোনা অার উড়ন্ত অট্টালিকার মাথায় ব্যর্থ স্বপ্নের গালিচা… অাজ অামার খাঁখা রঙিন পৃথিবীর সবটুকু রাস্তায় ছড়ানো ধূধূ মরীচিকার বেরঙিন কার্পেট- পায়ে পায়ে … বিস্তারিত »

  • ফয়সাল হাবিব সানি’র কবিতা `নিঃসঙ্গ’

    নিঃসঙ্গ অর্থ সঙ্গহীনতা নয়- কেননা অাপামর ব্যর্থ মানুষ জেনে নিও- তোমার `তুমি’ই সবথেকে তোমার বড়ো সঙ্গ; সঙ্গহীনতা মানে তোমার `তুমি’কে ত্যাগ করা, তুমিই তোমাকেই ছুঁড়ে ফেলা তমসাচ্ছন্ন গহনারণ্যে! নিঃসঙ্গ অর্থ নিজেকে সঙ্গ দেওয়া- সময়ময় তুমিতে নিজের জন্য নিজেকে নিয়ে ভাবা- নিঃসঙ্গ মানেই তোমার ভেতর সৃষ্টিশীলতার উত্থান- অলভ্য তুমিকেই `তুমি’ দিয়ে সৃষ্টি করা! নিঃসঙ্গ অর্থ তুমি … বিস্তারিত »

  • ফয়সাল হাবিব সানি’র কবিতা `কতোটুকু, কতোটুকুই’

    কতোটুকু পোঁড়ালে খাঁটি হবে প্রেম কতোটুকু পোঁড়ালে তুমি কতোটুকু অপ্রাপ্তি গেঁথে দিলে বুকে কতোটুকু প্রাপ্তি চুমি! কতোটুকু করলে নিঃস্ব অামায় কতোটুকু তুমি নিলে কতোটুকু ভালোবাসা খোয়ালে তুমি এ কেমন কষ্ট দিলে! যন্ত্রণা, দহন, হতাশ্বাসে কতোটুকু অাঁকলে ছবি কষ্ট নিতেই কবি দুনিয়ায় অাসে কবি কষ্টেরই প্রতিচ্ছবি! কতোটুকু তুমি ধন্য হলে কতোটুকু হারালাম অামি মাটির হাতে তোমার … বিস্তারিত »

  • দু’ফোটা অভিমানী শিশির- লিটন আব্বাস

    শপথ করছি নিজের নামে একবার আসতে দাও; বসতে দাও পাশে মুখোমুখি সাথে কোরে শ্বাসমূল টানতে দিয়ো যে হাতটি আগে বাড়ে তোমার তাকে স্পর্শ করতে দিয়ো, বিশ্বাস করো শুধুই স্পর্শের অধিকারটুকু নিরালা দুপুরে; দুপুরায় জমে থাকা দুফোটা অভিমানী শিশিরে মুখখানি ভেজাবো তারপর সব ভুলে ভেসে থাকা রঙিন, সৌখিনÑ মৎস্যপুকুরে পা ভিজিয়ে, উঠে যাবো চিরকালের পথে। শপথ … বিস্তারিত »

  • ফয়সাল হাবিব সানি’র কবিতা `যেদিন রাত হতে হতে…’

    যেদিন রাত হতে হতে অার সকাল হবে না সেদিন অার অামি থাকব না- এই অাঁধোমুখী চাঁদ, শাওন ভরা জ্যোৎস্না, মোহনীয় অাকাশ, মায়াবী নীলিমা নীলামায়ও হারাবে না- শুধু হারিয়ে যাব অামি! গ্রামের মেঠো পথ পাড়ি দিয়ে অার পৃথিবীর পথও ধরা হবে না অামার- যাওয়া হবে না কোথাও, যেখানে যেতে চেয়েছিলাম… সুসুপ্ত প্রেমও হারিয়ে যাবে অব্যক্ত জিজ্ঞাসায়- … বিস্তারিত »

  • উদীয়মান কবি সানি’র জীবনের প্রথম কবিতা স্বাধীনতার মর্মকথা’

    নবম শ্রেণির ছাত্রাবস্থায় রচিত এ সময়ের উদীয়মান তরুণ কবি ফয়সাল হাবিব সানি’র জীবনের প্রথম কবিতা অামার দেশের নাম বাংলাদেশ, সবুজের সমারোহে দেশটি বেশ। প্রচলিত রয়েছে হরেক রকম খেলা, ক্রিকেট, ফুটবল অারও নানান খেলার পালা। দেশটিতে রয়েছে অনেক ইতিহাস, একাত্তরে রাস্তায় পড়েছিলো অনেক লাশ; লাশের বিনিময়ে অর্জিত হলো অামরাই করব এদেশে বাস। বাংলা ভাষায় হানা দিয়েছিলো … বিস্তারিত »

  • লাল চিনার পাতা শুধু উপন্যাস না

    লাল চিনার পাতা শুধু উপন্যাস না। এটি একটি এইতিহাসিক দলিল। যা ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কাছে তুলে ধরা দরকার। আমি আমার এই উপন্যাসে ইতিহাসের এক অন্ধকারতম অধ্যায়কে তুলে ধরার চেষ্টা করেছি মাত্র । এর জন্য কিছু ব্যক্তিগত সাক্ষাৎকার , আত্মজীবনী , সংবাদপত্র সহ বেশ কিছু বইয়ের সহায়তা আমি নিয়েছি । কাশ্মীর সব সময় আমাকে গভীরভাবে আকর্ষণ করে … বিস্তারিত »

  • ফয়সাল হাবিব সানি’র নামহীন প্রেমের কবিতা

    একদিন অামার সব গচ্ছিত ভালোবাসা অগচ্ছিত করে উজাড় করে দেবো তোমায়- শুধু তোমার হাসিটুকু শুধু অাজও সেই অলভ্য সুধাটুকু ধার দিও অামায়। জানো, বড্ড বাঞ্চা অামার- তোমার সেই হৃদয় বশীকরণ হাসি দিয়ে অামার হৃদয়ে নান্দনিক এক জলসাঘর বানাব; তোমার হাসির ঝলকানিতেই জ্বলে উঠবে সে জলসাঘরের প্রতিটি বাতি, জ্যোতিতে ভুবনময় জ্যোতির্ময় হবে অামার শয্যা অার সেদিন … বিস্তারিত »

  • ফুচকা পর্ব ৮ দেবশ্রী চক্রবর্তী

    মায়ের জ্বর হয়েছে, মা আজ আসতে পারে নি বাস স্টপে । আজ বাস থেকে নেমে ফুচকার দেখা হয় তিনটে হনুমানের সাথে হনু গুলো লাইট পোস্টের নীচে বসে পটল খাচ্ছিল । শম্ভুর সবজীর দোকান লাইট পোস্টের পাশে , দোকানের সামনে রোজ কিছু সবজী সে রেখে যায় ষাঁড় এর খাবার হিসেবে । বুদনের ঠাকুমার পোষা ষাঁড়টা রোজ … বিস্তারিত »