ড. গোলাপ এমপি নির্বাচিতের পর হানাহানি কমেছে কালকিনিতে

Feature Image

মেহেদী হাসান রনি, স্বাধীনবাংলা২৪.কম
মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় কমেছে চুরি, ছিনতাই, মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গীবাদসহ অপরাধ মূলক কর্মকান্ড। সেই সাথে বেড়েছে সরকারের প্রতি জনগণের আস্থা। মাদারীপুরের কালকিনিতে ২০১৮ সালের এর তুলনায় ২০১৯ সালের জানুয়ারী থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত কমেছে অপরাধ কর্মকান্ড।


২০১৮ সালে মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলায় নানা অপরাধের অভিযোগে কালকিনি থানায় ৩৮০টি মামলা দায়ের হয়েছে আর অন্যদিকে ২০১৯ এর জানুয়ারী হতে ডিসেম্বরের এপর্যন্ত মামলা হয়েছে ২৫১টি। এবং উপজেলার ডাসার থানায় ২০১৮ সালে নানা অপরাধে মামলা হয়েছে ৮৮টি এবং ২০১৯ সালের ডিসম্বরের এপর্যন্ত নানা অপরাধে মামলা হয়েছে ৮৬টি।


একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মাদারীপুর-৩ (কালকিনি-ডাসার-সদরের আংশিক) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ কঠোর হুশিয়ারী দেন এই এলাকায় কোন অপরাধ সংঘঠিত হতে দেয়া হবে না। ধীরে ধীরে অপরাধের হার কমিয়ে আনা হবে। তারই ধারাবাহিকতায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন এ বিষয়ে কাজ করার জন্যে। সে অনুযায়ী কাজও করেন আইনশৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহানীর সদস্যরা। অপরাধ প্রবণতা কমাতে বিভিন্ন উদ্যোগ নেন তারা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও সাংসদ ড. আবদুস সোবহান গোলাপ এমপি স্বাধীনবাংলা’কে বলেন, শেখ হাসিনার সরকার বাংলাদেশের সাধারণ মানুষের ভাগ্যোন্নয়েন নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমি মাদারীপুর-৩ আসন থেকে নির্বাচিত হবার পর থেকেই জনগনের মধ্যে শান্তি বজায় রাখতে অপরাধপ্রবণতা কমানোর নির্দেশ দেই। দলাদলি, মারামারি, হানাহানি আমি একদম পছন্দ করি না। আমি চাই সবাইকে নিয়ে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সবাইকে নিয়ে কাজ করতে।

এ বিষয়ে কালকিনি থানার অফিসার ইনচার্জ নাসির উদ্দিন স্বাধীনবাংলা’কে বলেন, আমরা সব সময় সজাগ ছিলাম এবং আছি অপরাধ প্রবণতা কমাতে। অপরাধ প্রবণতা কমাতে এলাকায় এলাকায় বিভিন্ন বাজারে বাজারে সাধারণ মানুষের সাথে মতবিনিময় করছি আমরা। এছাড়াও বাল্যবিবাহ, মাদকবিরোধী, অপরাধমুলক কর্মকাÐের ক্ষতিকারক দিকগুলো তুলে ধরে জনসচেতনা সৃষ্টির লক্ষ্যে প্রতি মাসে মাসিক সভার আয়োজন করে আসছি আমরা। এর মাধ্যমে সচেতনা বৃদ্ধি করতে সক্ষম হয়েছি আমরা।

কালকিনি উপজেলার সিডিখান ইউনিয়নের মুদি দোকানদার টুটুল বেপারীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ড. গোলাপ নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে এই এলাকায় শান্তি নেমে এসেছে। এখন আর আগের মত আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে কোন ধরনের হানাহানি হয় না এই এলাকায়।

আরো খবর »