কে হচ্ছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক?

Feature Image

ঢাকা : কে হতে যাচ্ছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পরবর্তী সাধারণ সম্পাদক, এই বিষয়টি নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা। অনেকের নামই আলোচিত হচ্ছে। এই মুহূর্তে দলের নেতাকর্মীর মধ্যে সব আলোচনা, পর্যালোচনা সাধারণ সম্পাদক পদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রয়েছে। দলের অন্য পদগুলোতে কে আসছেন তা নিয়ে কারো তেমন আগ্রহ নেই। ঘুরেফিরে সাধারণ সম্পাদকের বিষয়টিই সামনে চলে আসছে। কে পাচ্ছেন দলের এই দ্বিতীয় শীর্ষ ও গুরুত্বপূর্ণ পদটি, তা কেবলমাত্র আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাই জানেন।

আজ শুক্রবার আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনেও আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে ছিলো দলের ‘সাধারণ সম্পাদক’ পদ। এই পদে কে আসছেন, এই প্রশ্নের সমাধান খুঁজতে সবার দৃষ্টি এখন আগামীকালের কাউন্সিলের দিকে।

আজ শুক্রবার বিকেলে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন উদ্বোধন করা হয়েছে। আগামীকাল শনিবার অনুষ্ঠিত হবে কাউন্সিল। এই কাউন্সিলে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ দলের গুরুত্বপূর্ণ কিছু পদের নেতা নির্বাচন করা হবে।

সভাপতি অর্থাৎ দলের শীর্ষ পদে এবারও বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা থাকছেন। দলের সর্বস্তরের নেতাকর্মী ও কাউন্সিলররা শেখ হাসিনার বিকল্প ভাবছেন না। কাউন্সিলে সভাপতি হিসেবে শেখ হাসিনার নাম ঘোষণা এখন আনুষ্ঠানিকতা মাত্র। এ কারণে সবার প্রধান আকর্ষণ সাধারণ সম্পাদক পদটির দিকে। শুধু আওয়ামী নেতাকর্মীরাই নয়, দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনসহ সর্বস্তরের মানুষের জানার আগ্রহ, দৃষ্টি এই দিকে।

সবাই এখন তাকিয়ে আছেন সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের কাউন্সিলের দিকে। কে হচ্ছেন সাধারণ সম্পাদক!

শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট প্রাঙ্গণে কাউন্সিল অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। এই কাউন্সিলে দলের নতুন নেতৃত্ব নির্বাচন করা হবে। আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে সারাদেশ থেকে আসা কাউন্সিলররা নেতৃত্ব নির্বাচেনের ক্ষেত্রে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার ওপর দায়িত্ব প্রদান করেন। কাউন্সিলদের এই দায়িত্ব নিয়ে শেখ হাসিনা নেতৃত্ব নির্বাচন করে থাকেন। তাই দলের পরবর্তী সাধারণ সম্পাদক কে হচ্ছেন, সেটা একমাত্র শেখ হাসিনাই জানেন।

আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় কয়েকজন নেতা গণমাধ্যমকে জানান, সাধারণ সম্পাদক পদে পরিবর্তন আসছে কি না, বা নতুন সাধারণ সম্পাদক কে হচ্ছেন, সেটা শুধু শেখ হাসিনাই জানেন। এ ব্যাপারে তিনি কারো সঙ্গে কোনো আলোচনা করেননি বা কোনো ইঙ্গিতও দেননি।

এদিকে আওয়ামী লীগের এই দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পদে আলোচনার শীর্ষে রয়েছেন দলের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তাকেই পুনরায় সাধারণ সম্পাদক করা হচ্ছে বলে জোরালো আলোচনা আছে। দলের অনেক নেতাকর্মীর ধারণা, শেষ মুহূর্তে ওবায়দুল কাদেরকেই আবারও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বেছে নেবেন দলের সভাপতি শেখ হাসিনা।

তবে ওবায়দুল কাদের সাধারণ সম্পাদক না হলে নতুন কে এই পদে আসতে পারেন, সেই আলোচনাও রয়েছে। বিকল্প হিসেবে বেশ কয়েকজনের নাম আলোচনায় উঠে এসেছে।

এদের মধ্যে শীর্ষে রয়েছেন তরুণ আওয়ামী লীগ নেতা এবং কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। সাধারণ সম্পাদক পরিবর্তন হলে খালিদ মাহমুদ চৌধুরীকে এই পদের দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে বলে অনেকের ধারণা। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মণির নামও জোর আলোচনায় আছে। তাকেও এই পদে আনা হতে পারে।

এছাড়া দলের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং তথ্যমন্ত্রী ডা. হাছান মাহমুদ, কার্যনির্বাহী সদস্য ও গাজীপুরের সাবেক মেয়র অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রাহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপনের নামও আলোচনায় উঠে আসছে। তবে এসব কিছুর চূড়ান্ত পরিণতির জন্য শনিবার পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।

আরো খবর »