বর্তমান সংসদ সদস্যের প্রচেষ্টায় কুমারখালীর গড়ের মাঠ ব্রীজ নির্মাণ হতে চলেছে

Feature Image

লিপু খন্দকার ঃ  বহুল আলোচিত উপজেলার মহেন্দ্রপুর অভিমুখী প্রধান সড়কে ব্রিটিশ আমলে নির্মিত গড়ের মাঠ ব্রীজটি ভগ্নদশায় উপনীত হয়েছে। দীর্ঘদিন যাবত বিভিন্ন পত্র পত্রিকায় একাধিক প্রতিবেদন, সোশ্যাল মিডিয়ায় ষ্ট্যাটাসের ঝড় তুললেও ব্রীজটি নির্মাণে এগিয়ে আসেনি কোন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। সাবেক সংসদ সদস্য আব্দুর রউফ ক্ষমতায় থাকাকালীন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) আওতায় পিসি গার্ডার ব্রীজটি ৮০ ফুট লম্বা ও ১৮ ফুট চওড়া ২ কোটি ৩ লাখ টাকা নির্মাণ ব্যয় ধরে তিনবার টেন্ডার আবেদন করা হলেও কাজ করতে এগিয়ে আসেনি কোন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান।

সম্প্রতি ব্রীজটির পুণরায় টেন্ডার হয় একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান টেন্ডার ড্রপ করে কিন্তু পরবর্তীতে তাদের পিসি গার্ডার কাজের সরঞ্জাম না থাকায় তারাও কাজটি না করে ছেড়ে দেয়।

অবশেষে কুষ্টিয়া ৪ আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিষ্টার সেলিম আলতাফ জর্জের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় কুমারখালী টু মহেন্দ্রপুর সড়কের গড়ের মাঠ ব্রীজের কাজ করতে সম্মত হয়েছেন নেশনটেক কমিউনিকেশন লিমিটেড ও রানা বিল্ডার্স লিমিটেড।

গুরুত্বপূর্ণ এই সড়কের উপর নির্মিত ব্রীজটির উপর দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ও প্রচুর যানবাহন চলাচল করে কিন্তু ব্রীজটির ভগ্নাদশার কারনে মাঝে মাঝেই ছোট বড় দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। জগন্নাথপুর ইউনিয়ন ও সদকী ইউনিয়নের একাংশের জনগণের যাতায়াতের একমাত্র সড়কের উপর নির্মিত ব্রীজটির দুরবস্থার কারনে জনসাধারণের ভোগান্তির শেষ নেই। অবশেষে ব্রীজটি নির্মাণের চুড়ান্ত সংবাদ জনমনে স্বস্তি এনে দিয়েছে।

এবিষয়ে উপজেলা ইঞ্জিনিয়ার মাহাবুব আলম জানান সংসদ সদস্য ব্যারিষ্টার সেলিম আলতাফ জর্জের প্রচেষ্টায় গড়াই নদীর উপর নির্মিত শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু নির্মাণ করছেন যে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান তারাই গড়ের মাঠ ব্রীজ নির্মাণ করবেন। তিনি আরো বলেন শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু নির্মিত হবে ৫২ টি পিসি গার্ডার দিয়ে। এই পিছি গার্ডারের কাজ শেষ হলেই অতি সম্প্রতি গড়ের মাঠ ব্রীজের পিসি গার্ডারের কাজ শুরু হবে।

আরো খবর »