এ বছর কোন দেশে কত ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে

Feature Image

বিশ্বের অধিকাংশ দেশেই এ বছর ২৪ এপ্রিল থেকে রোজা শুরু হয়েছে। মহিমান্বিত রমজান এবার এমন একসময়ে এসেছে, যখন বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে প্রতিটি দেশই বিপর্যস্ত।

তাই অন্যান্য বছরের মতো এবারের রমজান ততটা উৎসবমুখর পরিবেশে পালিত হচ্ছে না। পরিস্থিতির কারণে তারাবিসহ পাঁচ ওয়াক্ত ফরজ নামাজ সবার আদায় করতে হচ্ছে ঘরে থেকে।

আজকের প্রতিবেদন থেকে মূলত আমরা জেনে নেব বিশ্বের কোন দেশে কত ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে।

এই বছর সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের রোজা পালিত হচ্ছে ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে। যেখানে প্রায় ২০ থেকে সাড়ে ১৮ ঘণ্টা পর্যন্ত রোজার সময় দীর্ঘায়িত হচ্ছে। কোনো কোনো দেশে হচ্ছে ১৯ থেকে সাড়ে ১৮ ঘণ্টার রোজা।

আবার একেবারে স্বল্প সময়ের রোজা পালিত হচ্ছে দক্ষিণ আমেরিকা ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় দেশগুলোতে। যার সময়কাল মাত্র ১১ ঘণ্টা।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আলজাজিরার হিসাব অনুযায়ী– নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার দেশগুলোতে স্বল্প সময়ের রোজা পালিত হলেও গ্রিনল্যান্ড ও নরওয়েতে পালিত হচ্ছে দীর্ঘ সময়ের রোজা।

২০ ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে– নরওয়ে, গ্রিনল্যান্ড, ফিনল্যান্ডে। ১৯ ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে– সুইডেন ও জার্মানে।

ডেনমার্ক, পোল্যান্ড, যুক্তরাজ্য, কাজাকিস্তান, বেলজিয়াম এবং সুইজারল্যান্ডে ১৮ ঘণ্টা রোজা রাখছেন মুসলমানরা।

১৭ ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে– রুমানিয়া, কানাডা, রাশিয়া, ফ্রান্স, ইতালি ও আফগানিস্তানে।

১৬ ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে– স্পেন, পর্তুগাল, গ্রিস, চীন, উত্তর কোরিয়া ও তুরস্কে।

এ ছাড়া যুক্তরাজ্যের কয়েকটি দেশসহ মরক্কো, জাপান, ইরান, ইরাক, লেবানন ও সিরিয়াসহ পাকিস্তানের কয়েকটি প্রদেশে ১৬ ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে।

প্রায় ১৫ ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে– মিসর, ফিলিস্তিন, কুয়েত, ভারত, বাংলাদেশ, ওমান, হংকং, সৌদি আরব, কাতার, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং পাকিস্তানের কয়েকটি প্রদেশে।

সুদান, ইয়েমেন, ইথিওপিয়া, শ্রীলংকা ও থাইল্যান্ডে ১৪ ঘণ্টা রোজা রাখতে হচ্ছে। মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, অ্যাঙ্গোলা, ইন্দোনেশিয়া ও কেনিয়াতে রোজার সময় ১৩ ঘণ্টা।

ব্রাজিল ও জিম্বাবুয়েতে যা নেমে এসেছে ১২ ঘণ্টায়।

আর সবচেয়ে স্বল্প সময় অর্থাৎ সাড়ে ১১ ঘণ্টার রোজা পালিত হচ্ছে– দক্ষিণ আফ্রিকা, আর্জেন্টিনা, নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও চিলিতে।

পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশে দিন ও রাতের মাঝে দীর্ঘ একটা সময়ের ব্যবধান থাকে। কিন্তু কয়েকটা দেশের ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রম হয়।

বিস্ময়কর ওই দেশগুলোতে দিন ও রাতের মধ্যখানে ব্যবধান থাকে মাত্র চার থেকে পাঁচ ঘণ্টা সময়ের। সেখানে রোজা পালিত হয় আলেমদের সিদ্ধান্ত সাপেক্ষে।

ডন উর্দু অবলম্বনে মুহাম্মদ বিন ওয়াহিদ

আরো খবর »