এবার ফিরতে পারে হাম পোলিও রুবেলার মহামারী! হুঁশিয়ারি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার

Feature Image

অতিমারীর পর কি এবার একের পর এক মহামারী ফিরে আসছে ভারতসহ প্রায় গোটা বিশ্বেই? ফিরে আসতে চলেছে পোলিও, হাম, রুবেলা, কলেরা, ডিপথেরিয়া ও ডায়রিয়ার মতো ভয়ঙ্কর সংক্রামক ব্যাধিগুলি?

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, জাতিসংঘের অধীনস্থ ‘ইউনিসেফ’ এবং গরিব দেশগুলিতে টিকাকরণ কর্মসূচির তদারক সংস্থা ‘গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন্স অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (গ্যাভি)’-এর সাম্প্রতিক যৌথ সমীক্ষা এই অশনি সংকেত দিয়েছে।

সমীক্ষা জানিয়েছে, বিশ্ব জুড়ে করোনা সংক্রমণ ও লকডাউনের জেরে টিকাকরণ কর্মসূচি দারুণভাবে ব্যাহত হওয়ার ফলে যে সব রোগ হারিয়ে গিয়েছিল, তাদের ফের জোরালো ভাবে ফিরে আসার উপক্রম হয়েছে। বিপন্ন হয়ে পড়েছে অন্তত ৮ কোটি শিশুর জীবন। এশিয়ায় ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, বাংলাদেশ ও আফ্রিকায় উগান্ডা, নাইজিরিয়া, চাঁদ, ইথিওপিয়া, বুরুন্ডি, ক্যামেরুনসহ বিশ্বের ১২৯টি দরিদ্র ও অল্প আয়ের দেশে। এই শিশুদের বয়স ১ বছরেরও কম।
হাম, রুবেলা, মাম্পসে টিকাকরণে যথেষ্টই ব্যাঘাত ঘটেছে ভারতে লকডাউনের জন্য দেশে দেশে টিকাকরণ কর্মসূচি পুরোপুরি থমকে যাওয়ায় অন্তত ৮ কোটি শিশুর পোলিও, হাম, রুবেলা, কলেরা, ডিপথেরিয়া, ডায়রিয়াসহ নানা ধরনের জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রবল হয়ে উঠেছে।

‘ইন্টারন্যাশনাল পিডিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন (আইপিএ)’-এর কার্যনির্বাহী কর্মকর্তা, শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ নবীন ঠাকার বলছেন, “ভারতের জাতীয় স্বাস্থ্য মিশনের তথ্যই জানাচ্ছে, ২০১৯-এর মার্চের তুলনায় এ বছরের মার্চে হাম, রুবেলা, মাম্পসের টিকাকরণের কাজ ৬৯ শতাংশ কম হয়েছে।’’

হামের টিকা বন্ধ ভারতসহ ২৭টি দেশে

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এবং ইউনিসেফ-এর যৌথ সমীক্ষার বক্তব্য, ১২৯টি গরিব ও অল্পবিত্তের দেশের মধ্যে কম করে ৬৮টি দেশে চিকিৎসক বা টিকাকরণ কর্মসূচির মাধ্যমে টিকা দেওয়ার কাজে যথেষ্টই ব্যাঘাত ঘটেছে করোনা সংক্রমণ ও লকডাউনের জেরে।

যাতে হাম না হয়, সে জন্য এক বছরের কমবয়সিদের সার্বিক ভাবে টিকা দেওয়ার কাজ এই সময়ে পুরোপুরি বন্ধ হয়ে গিয়েছে ২৭টি দেশে। যাদের মধ্যে অন্যতম আফ্রিকার দু’টি দেশ- চাদ ও ইথিওপিয়া।

অতিমারীর চেয়েও ভয়ঙ্কর হয়ে উঠবে ওই সব মহামারী!

আর সদ্যোজাতদের পোলিও খাওয়ানোর কাজ বন্ধ হয়ে গিয়েছে ৩৮টি দেশে। যাদের মধ্যে রয়েছে পাকিস্তান ও গণতান্ত্রিক কঙ্গো প্রজাতন্ত্রের মতো দেশগুলি।

বিজ্ঞানী ও টিকা বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা, এর ফলে, আগামী দিনে হাম, রুবেলা, কলেরা, ডায়রিয়া ও ডিপথেরিয়ার মতো বিভিন্ন সংক্রামক রোগে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা কোভিড-১৯ ভাইরাসের দৌলতে আক্রান্তের সংখ্যাকেও হার মানাবে।

সংক্রামক রোগগুলির মধ্যে প্রথমেই যে নামটি আসে, তা হল, পোলিও। কোটি কোটি শিশুকে টিকাকরণ কর্মসূচির আওতায় আনার ফলে ৭ বছর আগে পোলিও রোগটি ভারত থেকে এক রকম নির্মূলই হয়ে গিয়েছিল। লাগাতার টিকাকরণ কর্মসূচির দৌলতে ২০১৮ এবং ২০১৯-এ ভারতে দ্রুত কমেছিল হাম, রুবেলায় আক্রান্তের সংখ্যাও।

হাম, রুবেলা, পোলিওর ক্ষয়-খতিয়ান

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ইউনিসেফ-এর সমীক্ষা রিপোর্ট জানাচ্ছে, গত বছর ভারতসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদস্য ১১টি দেশে হামে আক্রান্তের ঘটনার সংখ্যা মোট যত ছিল (১৯ হাজার ৭২৬টি), এ বছরের প্রথম ৪ মাসেই সেই সংখ্যাটা তার সাড়ে তিন ভাগের এক ভাগ হয়েছে।

নবীন ও অরুণ বলছেন, “বছরের আরও ৮ মাস বাকি। করোনার জেরে প্রায় বছরের শুরু থেকেই ভারতে বন্ধ হয়েছে বা ব্যাঘাত ঘটেছে টিকাকরণ কর্মসূচিতে। একই ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সদস্য আরও ১০টি দেশে। ফলে, এ বার ভারত-সহ ওই ১১টি দেশে হামে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বাড়ার আশঙ্কা জোরালো হয়েছে।’’

সমীক্ষা রিপোর্ট এও জানাচ্ছে, গত বছর ওই ১১টি দেশে রুবেলায় আক্রান্ত হওয়ার যতগুলি ঘটনা জানা গিয়েছিল (৪ হাজার ৩৬৩টি), এ বছরের প্রথম ৪ মাসে সেই সংখ্যাটা দৃশ্যত কম (৫১১টি) হলেও জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারি ও মার্চে ঘটনার সংখ্যা পৌঁছেছে ৫০৯টিতে। সূত্র: আনন্দবাজার।

আরো খবর »