নৌকার সাথে ভেসে উঠল তিন জেলের লাশ

Feature Image

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদী ও বঙ্গোপসাগরের মোহনায় জোয়ারের কবলে পড়ে জেলেদের একটি মাছ ধরার নৌকাডুবির ঘটনা ঘটেছে। এতে নৌকায় থাকা তিন জেলের মৃত্যু হয়েছে। ঘটনায় জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে ১১ জেলেকে। বুধবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে চরগাঙ্গুরিয়া এলাকার মেঘনা নদী থেকে লাশগুলো উদ্ধার করা হয়।

নিহতরা হচ্ছেন, হাতিয়া উপজেলার চরকিং ইউনিয়নের দাসপাড়া গ্রামের মনিন্দ্র কুমার দাসের ছেলে প্রাণ নাগ দাস (৫০), সুবর্ণচর উপজেলার পূর্ব চরবাটা গ্রামের নিরঞ্জন দাসের ছেলে শুকলব দাস (২৫) ও চরজব্বর ইউনিয়নের নোয়াপাড়া গ্রামের অঞ্জন চন্দ্র দাসের ছেলে সৌরভ দাস (১৩)। জীবিত উদ্ধারকৃতরা সবাই সুবর্ণচরের বাসিন্দা।

উদ্ধার হওয়া জেলেরা জানায়, রবিবার সকালে মাছ ধরার উদ্দেশ্যে সুবর্ণচর উপজেলার চর আমান উল্যাহ এলাকার জনিষ্ঠ চন্দ্র দাসের একটি মাছ ধরার নৌকা নিয়ে মেঘনা নদীতে যায় ১৪ জন জেলে। মঙ্গলবার বিকেলের দিকে মাছ ধরতে ধরতে জোয়ারের কবলে পড়ে মেঘনার সীমান্তবর্তী চরগাঙ্গুরিয়া এলাকার বঙ্গোপসাগরের মোহনায় চলে যায় তাঁরা। এসময় পানির ঘুরুন্ত কুন্ডলির মধ্যে পড়ে ডুবে যায় তাদের নৌকাটি। পাশ্ববর্তী একটি ট্রলারের সহযোগিতায় ১১ জন জেলে নিরাপদে উদ্ধার হলেও নিখোঁজ হয় তিন জন। বুধবার বিকেলে ওই এলাকায় নৌকাটি ভেসে উঠলে স্থানীয়দের সহযোগিতায় উদ্ধার করে কোস্টগার্ড। ভাসমান ওই নৌকা থেকে নিখোঁজ তিন জেলের লাশ উদ্ধার করা হয়।

হাতিয়া থানার ওসি আবুল খায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, নিহতদের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করর হয়েছে।

আরো খবর »