জবি শিক্ষার্থী মনিরের মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে মানববন্ধন

Feature Image

হত্যা মামলায় কারাগারে থাকা জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মনির হোসেনের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আজ রবিবার (১৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে মানববন্ধনে এই দাবি জানানো হয়।

গত ২৭ জুন শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার ভোলাই মুন্সিকান্দি গ্রামে জমি নিয়ে বিবাদের জের ধরে দুপক্ষে সংঘর্ষ হয়। এতে রিয়াজ মাদবর (১৭) নামের এক তরুণ গুরুতর আহত হন। পরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রিয়াজ।

ওই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ৪১ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৪০-৫০ জনের নামে লিটন মাদবর বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। ৩০ জুন দুপুরে মনিরকে জিজ্ঞাসাবাদের নামে থানায় নেয় পুলিশ। পরে ওই মামলার এজাহারে তার নাম না থাকা সত্ত্বেও মনিরকে অজ্ঞাত আসামি হিসেবে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, মনির জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের একজন শিক্ষার্থী। লকডাউনের জন্য তিনি গ্রামের বাড়িতে ছিলেন। তার সঙ্গে বাদী বা বিবাদী- কোনো পক্ষের কারো সঙ্গে সংযোগ ছিল না। তিনি তৃতীয় পক্ষের লোক এবং ঘটনার দিন ঘরেই অবস্থান করছিলেন তিনি। কিন্তু প্রহসনমূলকভাবে এই হত্যার ঘটনায় তাকে অজ্ঞাতনামা আসামি হিসেবে আটক করা হয়। এখন তাকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। আমরা অবিলম্বে মনিরের মুক্তি চাই। এ বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।’

মনিরের সহপাঠীদের দাবি, মনির ও তার পরিবারের সদস্যরা কোনো পক্ষের সঙ্গে জড়িত তো দূরের কথা সমর্থকও নন। এমনকি মনিরের পরিবারের কোনো সদস্য এই মামলার আসামিও নন। অথচ তালিকাভুক্ত আসামিরা সব গা ঢাকা দিলেও মনির তার বাড়িতে স্বাভাবিকভাবেই বসবাস করছিলেন। কিন্তু নীরিহ মনিরকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে এই মামলায় গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আমরা মনিরের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি।

আরো খবর »