বার কাউন্সিলের সামনে আইন শিক্ষার্থীদের সমাবেশ, আইনজীবী সনদ দাবি

Feature Image

বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ২০১৭ ও ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত প্রিলিমিনারি (এমসিকিউ) পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রায় ১৩ হাজার (১২৮৭৮ জন) শিক্ষার্থীকে আর কোনো লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা ছাড়াই আইনজীবী হিসেবে সনদ দেওয়ার দাবিতে সমাবেশ করছেন শিক্ষার্থীরা।

আজ রবিবার (১৯ জুলাই) সকাল থেকেই বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সামনে এ সমাবেশ চলছে তাদের। রাজধানীর বাংলামটর এলাকায় অবস্থিত বার কাউন্সিলের অস্থায়ী কার্যালয়ের সামনে এই সমাবেশ করা হচ্ছে। সমাবেশে ফজলে রাব্বী স্বরণ, একে এম মাহমুদ, সুমনা আক্তার লিলিসহ কেন্দ্রীয় ও জেলা প্রতিনিধিরা বক্তব্য রাখছেন। বিকেল ৪টা পর্যন্ত চলবে এই কর্মসূচি।

বক্তারা বলেন, দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত তাঁরা অবস্থান কর্মসূচি পালন করবেন। কোনো কোনো শিক্ষার্থী কাফনের কাপড় পরে অংশ নিয়েছেন কর্মসূচিতে। তাঁরা বলেন, ২০১৭ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের এক রায়ে প্রতিবছর একবার করে আইনজীবী তালিকাভুক্তির কাজ সম্পন্ন করতে বার কাউন্সিলকে নির্দেশ দেওয়া হয়। সারা দেশের আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রণকারী এই প্রতিষ্ঠানটি আপিল বিভাগের এই রায় কার্যকর করেনি।

বক্তারা আরো বলেন, বার কাউন্সিলের আইনজীবী তালিকাভুক্তকরণ কমিটি (এনরোলমেন্ট কমিটি) আপিল বিভাগ ও হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি, অ্যাটর্নি জেনারেল ও জ্যেষ্ঠ আইনজীবীদের সমন্বয়ে গঠিত। তাঁরাই আপিল বিভাগের রায় মানছেন না। তাঁরা বলেন, প্রতিবছর পরীক্ষা হওয়ার কথা থাকলেও কেবল ২০১৭ সালের ২১ জুলাই এবং ২০২০ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি প্রিলিমিনারি পরীক্ষা নিয়েছে। এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের এখনও লিখিত পরীক্ষা নেওয়া হয়নি।

চলমান করোনা পরিস্থিতি উল্লেক করে বক্তারা বলেন, দেশে এখন করনোভাইরাসের মহামারি অবস্থা চলছে। এরমধ্যে লিখিত পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব কিনা জানি না। পরীক্ষা নেওয়ার পরিবেশ না হলে এই ১২ হাজার ৮৭৮ শিক্ষার্থীকে আইনজীবী হিসেবে সনদ দিয়ে গেজেট প্রকাশ করা হোক।

আরো খবর »