করোনার মধ্যেও শিক্ষকদের কল্যাণের ৩৩ কোটি টাকা ছাড়

Feature Image

করোনার মধ্যেও অবসরপ্রাপ্ত বেসরকারি শিক্ষকের কল্যাণের ৩৩ কোটি টাকা ছাড় করেছে বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্ট। ঈদুল আজহার আগে আজ রবিবার ৮০২ জন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীর মধ্যে ৩৩ কোটি পাঁচ লাখ ৩৪ হাজার ১২৫ টাকা ছাড় করা হয়। গত ঈদুল ফিতরের আগেও করোনার ভাইরাসের চরম আতংকের মধ্যেও ১ হাজার ৫৭ জন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীকে ৩৯ কোটি ৬৬ লাখ ১৭ হাজার ৪০৮ টাকা তাদের ব্যাংক হিসাবে পৌঁছে দেন।

বৈশ্বিক মহামারি কভিড-১৯ করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্ত অবসরপ্রাপ্ত বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারীদের দুর্দশার কথা বিবেচনা করে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেবা প্রদান করে যাচ্ছে বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। তাদের প্রচেষ্টায় করোনার ভয়াবহতার মধ্যেও প্রায় দুই হাজার অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারী অনলাইন ব্যাংকিং এর মাধ্যমে তাঁদের বাড়িতে বসেই কল্যাণ সুবিধার টাকা পেয়েছেন। করোনা মহামারির মধ্যে কল্যাণ ট্রাস্ট থেকে মোট ৭২ কোটি ৭১ লাখ ৫১ হাজার ৫৩৩ কোটি টাকা ছাড় করা হয়েছে। শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের সচিব অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু নিজে এ ব্যাপারে সার্বক্ষণিক তদারকি করেন।

অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু এ ব্যাপারে বলেন, জাতির এই দুঃসময়ে শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের কর্মকর্তা কর্মচারীরা সর্বোচ্চ আন্তরিকতা দিয়ে তাদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে এই সেবা প্রদান করেছেন। এ ব্যাপারে উত্সাহ জুগিয়েছেন স্বয়ং শিক্ষামন্ত্রী ডা. দিপু মনি এমপি। শিক্ষামন্ত্রী নিজে ফোন করে খোঁজ খবর নিয়েছেন এবং পরামর্শ দিয়েছেন। এছাড়াও শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন এ ব্যাপারে উত্সাহিত করেছেন।

এবার নিষ্পত্তি করা আবেদনগুলোর মধ্যে ২০১৮ সালের মে এবং জুন মাসের নিয়মিত আবেদন ছাড়াও মৃত, অসুস্থ, মুক্তিযোদ্ধাসহ পরিপূরক বিশেষ আবেদন রয়েছে। ইতোমধ্যেই উল্লেখিত অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক কর্মচারীদের কল্যাণ সুবিধার টাকা বিএফটিএনের মাধ্যমে যার যার ব্যাংক হিসাবে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানান কল্যাণ ট্রাস্টের সচিব।

আরো খবর »