দোহারে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণ : মহিলা পরিষদের ক্ষোভ

Feature Image

ঢাকার দোহারে বিয়ের প্রলোভনে নারীকে ধর্ষণ এবং পরবর্তীতে এই ঘটনায় সালিশ করে প্রভাবশালীদের ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য করার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ ও তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ।

মহিলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. ফওজিয়া মোসলেম ও সাধারণ সম্পাদক মালেকা বানু স্বাক্ষ্যরিত ওই বিবৃতিতে ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

আজ বৃহস্পতিবার সংগঠনটির পক্ষ থেকে পাঠানো এক বিবৃতিতে বলা হয়, ঘটনার শিকার নারীকে বেআইনি সালিশের মাধ্যমে অপবাদ দিয়ে নানাভাবে হয়রানি ও নারীর মর্যদাহানী এবং জরিমানার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করছে। যারা এই ধর্ষণের ঘটনার বেআইনি সালিশের সাথে জড়িত তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছে।’

এ সময় বেআইনি সালিশ বন্ধে মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগের রায় বাস্তবায়নে সরকার, প্রশাসনের বিশেষ দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয় এবং ধর্ষণ, গণধর্ষণ, যৌন নিপীড়ন, পারিবারিক সহিংসতা এবং নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা প্রতিরোধে সকল সামাজিক শক্তিকে এগিয়ে আসার জন্য আহ্বান জানানো হয়।

আরো খবর »