পর্বতারোহী রত্নাকে চাপা দেওয়া গাড়ির চালক গ্রেপ্তার

Feature Image

পর্বতারোহী রেশমা নাহার রত্নাকে চাপা দেওয়া মাইক্রোবাসসহ এর চালক নাঈমকে (২৭) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ মঙ্গলবার দুপুরে রাজধানীর মিরপুরের ইব্রাহিমপুর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় একটি গ্যারেজ থেকে কালো রঙের টয়োটা হায়েস ব্র্যান্ডের কালো রঙের মাইক্রোবাসটি জব্দ করা হয়েছে। পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, দুর্ঘটনার সময় নাঈমই গাড়ি চালাচ্ছিলেন। প্রাথমিকভাবে সে ঘটনার দায় স্বীকার করেছে।

শেরে বাংলা নগর থানার ওসি জানে আলম মুন্সী বলেন, আমরা বেশ কয়েকটি সিসিটিভি ফুটেজ যাচাই-বাছাই করে একটি কালো রঙের গাড়ি শনাক্ত করেছিলাম। তবে কোনো ক্যামেরায় এর প্লেটের নম্বরটি স্পষ্টভাবে দেখা না যাওয়াই চালক ও মালিককে শনাক্ত করা যাচ্ছিল না। পরে গাড়িটি শনাক্ত করা হয় এবং ইব্রাহিমপুর থেকে গাড়িসহ এর চালককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা, শেরেবাংলা নগর থানার এসআই মোবারক আলী জানান, গত ১১ দিনে ঘটনাস্থলসহ সম্ভাব্য সড়কগুলোর অন্তত ৩৮২টি সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যালোচনা করা হয়েছে। এর পরই গাড়িসহ এর চালককে শনাক্ত করা হয়। চালক নাঈমের গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জে।

ওই গাড়িটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের অফিসে আনা-নেওয়ার কাজ করছিল। নাঈম গাড়িটির চালক হলেও এর মালিক আরেক ব্যক্তি। মালিক মাসিকভিত্তিতে গাড়িটি ভাড়ায় দিয়েছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ৭ আগস্ট সংসদ ভবন এলাকার চন্দ্রিমা উদ্যানের কাছে লেক রোডে সাইক্লিং করার সময় বেপরোয়া মাইক্রোবাসের ধাক্কায় নিহত হন রত্না। পরে তার ভগ্নিপতি মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনির শেরেবাংলা থানায় মামলা করেন।

রত্না একাধারে শিক্ষক, পর্বতারোহী, দৌড়বিদ ও সাইক্লিস্ট ছিলেন। জয় করেছেন ছয় হাজার মিটারের বেশি উচ্চতার দুটি পর্বতসহ দেশি-বিদেশি বেশ কয়েকটি পর্বত। অ্যাডভেঞ্চারের নেশায় এভারেস্টের চূড়ায় ওঠার স্বপ্ন ছিল রত্নার।

আরো খবর »