পিএসজির নতুন শুরুর পরিকল্পনা

Feature Image

ফ্রান্স লিগের সবকটি শিরোপা জিতেছে প্যারিস সেন্ট জার্মেইন। চ্যাম্পিয়নস লিগেরও খুবই কাছে ছিল তারা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত নেইমার-এমবাপ্পেরা সফল হতে পারেননি। করোনা প্রাদুর্ভাব এবং এক লেগে হওয়া এবারের চ্যাম্পিয়নস লিগে ভালো করা পিএসজিকে আগামী মৌসুমে দিতে হবে আরও বড় পরীক্ষা।

পিএসজিকে এবার সেই প্রস্তুতিই নিতে হবে। প্যারিসের দলটি ইউরোপ সেরার ফাইনালে হারার পর ক্লাব প্রেসিডেন্ট নাসের আল খেলাইফি জানিয়েছেন, তারা সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করেছেন। কিন্তু এবারের ফাইনাল তাদের প্রথম ছিল আর বায়ার্নের ছিল ১১তম। ওই খানেই তারা পিছিয়ে গেছে। তারপরও মৌসুমে চারটি শিরোপা জিততে পারা খারাপ নয়।

পিএসজি শিরোপা হারানোর পরই গুঞ্জন উঠেছিল টমাস টুখেলের চাকরি যাচ্ছে। তার জায়গায় ম্যাক্সিমিলিয়ানো আলেগ্রির নাম শোনা যাচ্ছিল। তবে টুখেল আরও একটি সুযোগ পাচ্ছেন বলেই মনে হচ্ছে। ফুটবলারদের আস্থা অর্জন করতে পেরেছেন তিনি। এছাড়া এডিনসন কাভানি, টমাস মুনিয়েররা চলে গেছেন। থিয়াগো সিলভা, এরিক চপো মোটিং দল ছাড়বেন। তাদের জায়গা পূরণ করাই মূল কাজ কোচের।

থিয়াগো সিলভার চেলসিতে যাওয়ার জোর গুঞ্জন। ৩৬ বছর বসয়ী ব্রাজিলিয়ান ছিলেন রক্ষণে পিএসজি মূল ভরসা। পুরো মৌসুমে অসাধারণ খেলেছেন তিনি। তার জায়গা পূরণ করা হবে পিএসজির মূল কাজ। এছাড়া ফাইনালে টুখেলের দলের মিডফিল্ডের কঙ্কাল বেরিয়ে এসেছে। কোচকে ওই জায়গা নিয়েও কাজ করতে হবে।

কোচের আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজ হবে এমবাপ্পের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করা। সেটি তিনি পারবেন কিনা বলা মুশকিল। যদিও এমবাপ্পে বলেছেন আগামী মৌসুমটা পিএসজিতেই আছেন তিনি। তার সঙ্গে ক্লাবের চুক্তি আছে ২০২২ সাল পর্যন্ত। তবে আগামী মৌসুমের পরে ফ্রান্স স্ট্রাইকার পিএসজি থাকবেন বলে মনে হয় না। নেইমারও আগামী মৌসুম পর্যন্ত প্যারিসে আছেন এটাও বলা যায়। তবে পরের মৌসুমে কী হবে সেটা বলা কঠিন। পিএসজিকে তাই দীর্ঘমেয়াদি দু-একটা পরিকল্পনাও করতে হবে।

আরো খবর »