চতুর্থ দিনে ঢাকার ২৯ হাসপাতালে মশকনিধন অভিযান

Feature Image

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন (ডিএনসিসি) কর্তৃক এর অধীন এলাকাসমূহের কভিড ও নন-কভিড হাসপাতালগুলোতে অবস্থানরত রোগী, ডাক্তার, নার্স ও চিকিৎসা সেবার সাথে নিয়োজিত অন্যান্যদের ডেঙ্গু রোগে আক্রন্ত হওয়ার ঝুঁকি রোধকল্পে পুনরায় সপ্তাহব্যাপী বিশেষ মশকনিধন কার্যক্রমের শুরু করেছে ডিএনসিসি।

কার্যক্রমের চতুর্থ দিনে আজ মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে চারটা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত ঢাকা উত্তরের মোট ২৯টি হাসপাতালে ডিএনসিসি কর্তৃক এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে। একই সাথে বিভিন্ন হাসপাতাল সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত নার্সারি সমূহেও মশক নিধন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে।

হাসপাতালগুলো হচ্ছে : উত্তরা অঞ্চল-১ এর অধীন আর.এম.সি হাসপাতাল এবং হাইকেয়ার হাসপাতাল। মিরপুর অঞ্চল-২ এর অধীন আকলিমা ম্যাটারনিটি ক্লিনিক, ব্রাক ম্যাটারনিটি, আনোয়ারা নার্সিং হোম, আলোক ডায়গনেস্টিক অ্যান্ড কনসালটেশন সেন্টার, সুরক্ষা জেনারেল হাসপাতাল এবং ব্রাক মানসি।

মহাখালী অঞ্চল-৩ এর অধীন ফরায়েজী হাসপাতাল, আল-রাজী হাসপাতাল, মা ও শিশু ক্লিনিক রামপুরা, বেটার লাইফ হাসপাতাল, মেট্রোপলিটন হাসপাতাল এবং ইউনিভার্সেল হাসপাতাল। মিরপুর অঞ্চল-৪ এর অধীন মহিলা ও শিশু স্বাস্থ্য কেন্দ্র, গ্যালাক্সি হাসপাতাল এবং হাইটেক হাসপাতাল।

কারওয়ান বাজার অঞ্চল-৫ এর অধীন শিশু হাসপাতাল শেরে বাংলা নগর, জাতীয় অর্থপেডিক ও ট্রমাটোলজি ইনস্টিটিউট, জাতীয় চক্ষু বিজ্ঞান ইনস্টিটিউট, ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল, এইটাম হাসপাতাল আদাবর, মোহাম্মদপুর ফার্টিলিটি সেন্টার, আল-মানার হাসপাতাল এবং ঢাকা শিশু ও নবজাতক হাসপাতাল লালমাটিয়া।

উত্তরার অঞ্চল-৬ অধীন ইবনে সিনা ডায়গনেস্টিক সেন্টার উত্তরা-১৩, ল্যাব এইড ডায়গনেস্টিক সেন্টার উত্তরা সেক্টর-১৩ এবং ল্যাব ওয়ান ডায়গনেস্টিক সেন্টার উত্তরা সেক্টর-১৪ এবং অঞ্চল-৮ এর অধীন উত্তরখান ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র।

এই নিয়ে দ্বিতীয় ধাপের কার্যক্রমের এই চার দিনে ডিএনসিসির অধীন মোট ১২৪টি হাসপাতালে বিশেষ মশকনিধন কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়েছে।

সপ্তাহব্যাপী এই কার্যক্রমে প্রতিদিন বিকেল সাড়ে চারটা থেকে সাড়ে ছয়টা পর্যন্ত লার্ভিসাইডিং (মশার লার্ভার কীটনাশক) ও এডাল্টিসাইডিং (পরিণত মশার কীটনাশক) প্রয়োগ করা হচ্ছে। ঢাকা উত্তরের হাসপাতালগুলোতে আগামীকালও এই মশক নিধন কার্যক্রম চলমান থাকবে।

উল্লেখ্য, ডিএনসিসির অন্যান্য এলাকায় মশক নিধনের স্বাভাবিক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

আরো খবর »