বাবা-মার ওপর অভিমানেই আত্মহত্যা অভিনেত্রী লরেনের

Feature Image

নিজেকে বিকশিত করার আগেই ঝরে পড়লো তরুণ মডেল ও অভিনেত্রী লরেন মেন্ডেস। রোববার সকাল আনুমানিক সাড়ে ৭টার দিকে নিজ বাসায় গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এই তরুণী। জানা গেছে, বাবা-মার প্রতি অভিমান করেই আত্মহত্যা করেন এ অভিনেত্রী।

লরেনের পরিবারের বরাত দিয়ে গুলশান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, বাবা-মায়ের সাথে অভিমান করে আজ সকাল ৭টার দিকে নিজ ঘরের সিলিং ফ্যানের সাথে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন। এসময় তার মা বাসার বাইরে ছিলেন। ঝুলন্ত অবস্থা থেকে লাশটি নামান তার বাবা। খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

তিনি আরও জানান, স্বাধীনচেতা ছিলেন লরেন মেন্ডেস খুব । যখন-তখন বাড়ির বাইরে যেতেন। এ নিয়ে বাবা-মায়ের সাথে কাটাকাটি হতো প্রায়ই। সে সূত্রধরেই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি।

টিনএজ এ অভিনেত্রী বেশ অল্প সময়েই পেয়েছিলেন পরিচিতি। ‘ইন্টারনেট শেষ হলেও, নো টেনশন’- এয়ারটেলের বিজ্ঞাপনে ব্যবহৃত এই সংলাপটি দিয়ে আলোচনায় আসেন লরেন। বিজ্ঞাপনের আগে ক্যারিয়ারের শুরুটা নানা পণ্যের ফটোশুট মডেল হিসেবে কাজ করেছেন তিনি। কিন্তু এয়ারটেলের টানা কয়েকটি বিজ্ঞাপনে কাজ করার মাধ্যমেই পরিচিত পান তিনি। আসেন আলোচনাতেও।

‘ঘোর’ শিরোনামে তপু খান ও কণার একটি গানের মিউজিক ভিডিওতে মডেল হতেও দেখা গেছে তাকে। পাশাপাশি ‘তোমার পিছু ছাড়বো না’ শিরোনামের আরও একটি গানের মডেল হন।

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‌‘অমর প্রেম’-এ। সর্বশেষ সঞ্জয় সমদ্দার পরিচালিত ‘ট্রল’ নাটকের শুটিং করছিলেন তিনি।

আরো খবর »