‘ওয়াহিদা খানমকে বিদেশে পাঠানোর প্রয়োজন নেই, তিনি শঙ্কামুক্ত’

Feature Image

দুর্বৃত্তদের হামলায় গুরুতর আহত দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানমকে এই মুহূর্তে বিদেশে পাঠানোর কোনো প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম।

আজ শনিবার সকালে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন ইউএনও ওয়াহিদার সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ওয়াহিদা খানমের স্বাস্থ্যগত উন্নতি ঘটছে, তবে সতর্কতার সঙ্গে তাঁকে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে।

এদিকে ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালের নিউরো ট্রমা বিভাগের প্রধান নিউরো সার্জন ও গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের প্রধান মোহাম্মদ জাহিদ হোসেন বলেছেন, সফলভাবে ওয়াহিদা খানমের অপারেশন সম্পন্ন হয়েছে, তবে রয়েছে সংক্রমণের ঝুঁকি, সে জন্য নিয়োজিত বোর্ডের চিকিৎসকরা তাঁকে অবজারভেশনে রেখেছেন।

ডা. জাহিদ হোসেন বলেন, ওয়াহিদা খানমের প্যারালাইজড হয়ে যাওয়া শরীরের ডান পাশের এখনো কোনো ধরনের উন্নতি হয়নি। যেমন ছিল তেমনই আছে। যেহেতু ওনার ব্রেনের একটা অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, হাড় ভেঙে ব্রেনে কিছুটা আঘাত করেছে, সে জন্য এটার এখনো কোনো উন্নতি হয়নি। এ ক্ষেত্রে কত দিন লাগবে বা কতটুকু উন্নতি হবে- এ মুহূর্তে বলা কঠিন। তবে আমরা আশাবাদী যে এটিরও উন্নতি হবে।

উল্লেখ্য, বুধবার (০২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে ইউএনও ওয়াহিদার সরকারি বাসভবনের ভেন্টিলেটর ভেঙে বাসায় ঢুকে ওয়াহিদা ও তাঁর বাবার ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। পরে ইউএনওকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (রমেক) নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এরপর তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টারে করে তাঁকে ঢাকায় আনা হয়। তিনি বর্তমানে রাজধানীর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্সেস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আরো খবর »