তারাকান্দার রাজ্জাক হত্যা মামলা : তিনজনের মৃত্যুদণ্ড হাইকোর্টে বহাল

Feature Image

একযুগ আগে ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলার আব্দুর রাজ্জাক হত্যা মামলায় তিনজনকে নিম্ন আদালতের দেওয়া মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে একজনের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। যাদের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখা হয়েছে তারা হলেন- মীর জাহান, এমদাদুল হক ওরফে এনদা এবং আনিসুর রহমান। আর জিয়ারুল হকের মৃত্যুদণ্ডের সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বিচারপতি সহিদুল করিম ও বিচারপতি মো. আখতারুজ্জামানের হাইকোর্ট বেঞ্চ সোমবার এ রায় দিয়েছেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে আইনজীবী ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বশির আহমেদ। আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট এস এম শাহজাহান ও ফজলুল হক খান ফরিদ।

জানা যায়, ২০০৮ সালের ১৫ অক্টোবর রাতে ময়মনসিংহ-হালুয়াঘাট সড়কের তারাকান্দার মধুপুর বাজার থেকে স্থানীয় এক মুরগি ব্যবসায়ীকে নিয়ে ময়মনসিংহ যাচ্ছিলেন ভ্যান চালক আব্দুর রাজ্জাক। পথে আব্দুর রাজ্জাকের ভ্যানের গতিরোধ করে তার কাছে থাকা ১৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে তাকে হত্যা করে আসামিরা। এরপর তার মরদেহ পাশের একটি ধানখেতে ফেলে যায় দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনার পর ওই দিন রাতেই ঘটনাস্থল থেকে আসামি মীর জাহানকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে স্থানীয়রা। এ ঘটনায় পরদিন নিহতের ভাই হযরত আলী ফকির বাদী হয়ে তারাকান্দা থানায় মামলা করেন। এরপর আসামি মীর জাহানের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে অপর তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার চার আসামিই হত্যার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

এই মামলায় বিচার শেষে ২০১৫ সালের ৪ মে ময়মনসিংহের চতুর্থ অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালত চার আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় ঘোষনা করে। মৃত্যুদণ্ডের রায় অনুমোদনের জন্য হাইকোর্টে পাঠানো হয় ডেথ রেফারেন্স। এছাড়া কারাবন্দি আসামিরা আপিল করেন। উভয় আবেদনের ওপর শুনানি শেষে আজ রায় দেন হাইকোর্ট।

আরো খবর »