বোমা নিয়ে ব্যাংক লুটের হুমকি: গ্রেপ্তার বকর তিন দিনের রিমান্ডে

Feature Image

গাজীপুর মহানগরীতে ব্যাংকে ঢুকে বোমা ফাটানোর ভয় দেখিয়ে টাকা লুটের হুমকি দেওয়ার ঘটনায় গ্রেপ্তার আবু বকরের (৩০) বিরুদ্ধে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এর আগে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে বৃহস্পতিবার তাঁকে মহানগর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠায় পুলিশ। দুপুরে শুনানি শেষে বিচারক হামিদুল ইসলাম ওই আদেশ দেন।

গাজিপুর মহানগর পুলিশের (জিএমপি) বাসন থানা সূত্রে জানা গেছে, ব্যাংকে ঢুকে বোমা ফাটানোর ভয় দেখিয়ে টাকা লুটের হুমকি দেওয়ার ঘটনায় নগরীর চান্দনা চৌরাস্তার শাপলা ম্যানশনের প্রাইম ব্যাংকের ম্যানেজার এম ফরিদ আহম্মেদ বাদী হয়ে বুধবার মধ্যরাতে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে আবু বকরের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

মামলায় বাদী উল্লেখ করেন, বুধবার দুপুরে আবু বকর একটি ব্যাগ নিয়ে তাঁর কক্ষে প্রবেশ করেন। পরে মোবাইল ফোনের ভিডিও ক্লিপে বোমা বিস্ফোরণের দৃশ্য দেখিয়ে ব্যাগের ভেতরে একটি বোমা আছে এবং এর রিমোট কন্ট্রোল নিয়ে ব্যাংকের নিচে তাঁর লোকজন অপেক্ষারত আছে বলেও জানান। কেউ চিত্কার করলে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে সবাইকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে ব্যাংকের ভল্ট খুলে তাঁকে টাকা দিতে বলেন আবু বকর। এ সময় ম্যানেজার কৌশলে পুলিশে খবর দেন। পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে আবু বকরকে আটক করে।

বাসন থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, আবু বকর বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ থানার বিসারীঘাটা এলাকার মৃত সেকান্দার আলী হাওলাদারের ছেলে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানিয়েছেন, ২০০৭ সাল পর্যন্ত তিনি নিজ জেলার একটি মাদরাসায় লেখাপড়া করেন। অর্থাভাবে গাজীপুরে এসে ভেলমন্ট গার্মেন্টে চাকরি নেন। করোনার কারণে চাকরিচ্যুত হয়ে হতাশায় ভুগছিলেন এবং একপর্যায়ে ব্যাংক লুটের পরিকল্পনা করেন।

উল্লেখ্য, গ্রেপ্তারের পর আবু বকরের ব্যাগ থেকে একটি পাইপবোমা উদ্ধার করে পুলিশ। খবর পেয়ে ঢাকা থেকে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের সদস্যরা এসে স্থানীয় শাপলা ম্যানশনের সামনে বোমাটির বিস্ফোরণ ঘটান।

আরো খবর »