২০৫ যাত্রী নিয়ে সেন্টমার্টিন নৌপথে পর্যটকবাহী জাহাজ বিকল

Feature Image

সেন্টমার্টিন থেকে টেকনাফ ফেরার পথে ‘এস টি শহীদ সালাম’ নামে একটি পর্যটকবাহী জাহাজ ইঞ্জিন বিকল হয়ে বঙ্গোপসাগরে আটকা পড়ে। জাহাজটিতে ২০৫ জন পর্যটক ছিল। প্রায় তিন ঘণ্টা পর জাহাজের যাত্রীদের নিরাপদে উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে জাহাজটি ২২৯ পযটক নিয়ে টেকনাফের দমদমিয়া জাহাজ ঘাট থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশে যাত্রা করে। বেলা সাড়ে তিনটার দিকে সেন্টমার্টিন জেটিঘাট থেকে ২০৫ পর্যটক নিয়ে ফেরার পথে সাগরে ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। জাহাজটি সন্ধ্যা ৬টায় টেকনাফের দমদমিয়া ঘাটে পৌঁছানোর কথা ছিল।

জাহাজটি ওই স্থানে প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে আটকা পড়ে। পরে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে স্পিডবোট ও ট্রলারে করে পর্যটকদের সেন্টমার্টিনে ফেরত আনা হলেও জাহাজটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

সেন্টমার্টিন ইউপির চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, ওই জাহাজটি বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে দুই শতাধিক পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিন জেটি থেকে টেকনাফের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার ১৫ মিনিট পরেই ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। পরে স্থানীয় লোকজন সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে স্পিডবোট ও ট্রলারে করে পর্যটকদের উদ্ধার করে সেন্টমার্টিন নিয়ে আসেন।

‘এস টি শহীদ সালাম জাহাজ’-এর টেকনাফের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ করিম বলেন, জাহাজটি রবিবার সকালে ২২৯ পর্যটক নিয়ে সেন্টমার্টিন উদ্দেশ্য রওনা হয়। কিছু যাত্রী রাত্রী যাপনের জন্য সেন্টমার্টিনের অবস্থান করে। বাকি প্রায় দুই শতাধিক পর্যটক নিয়ে বিকেলে ফেরার পথে জাহাজের ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়ে। বিকল হয়ে পড়ায় ইঞ্জিন চালুর চেষ্টা করা হচ্ছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘জাহাজটি ইঞ্জিন বিকল হয়ে পড়েছে বলে খবর শুনেছি। জাহাজ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। জাহাজে থাকা পর্যটকদের নিরাপদে সেন্টমার্টিনে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

আরো খবর »