ভারতকে মোকাবিলায় চীনের বহুমুখী জে-টেন যুদ্ধবিমান কিনছে পাকিস্তান

Feature Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: সামরিক শক্তি বাড়াতে ফ্রান্সের কাছ থেকে রাফাল যুদ্ধবিমান কিনেছে ভারত। এবার তাদের মোকাবিলায় চীন থেকে বহুমুখী জে-টেন যুদ্ধবিমান কিনছে প্রতিবেশি পাকিস্তান। দেশটির সামরিক বাহিনী বুধবার এ খবর নিশ্চিত করেছে।

এক সংবাদ সম্মেলনে পাকিস্তান সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর-জেনারেল বাবর ইফতিখার বলেন, “এটি আমাদের বিমানবাহিনীর নৌবহরকে আরও উন্নত করার ও সম্ভাব্য সর্বোত্তম প্রযুক্তিতে সমৃদ্ধ করার একটি পদক্ষেপ। কারণ আমরা জানি, অন্য (ভারতীয়) পক্ষ কী ধরনের প্রযুক্তি আহরণ করছে।”
জে-টেন হলো একটি একক-ইঞ্জিন যুক্ত যুদ্ধবিমান, যা ২০০৫ সাল থেকে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি এয়ার ফোর্স (পিএলএএএফ) ব্যবহার করছে বলে জানা গেছে।

পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ আহমেদ কয়েক দিন আগে এক অনুষ্ঠানে চীনা জেট কেনার কথা প্রকাশ করেন। এবার ইফতিখার জানালেন, জে-টেন ভারত মোতায়েনকৃত ফরাসি ড্যাসল্ট রাফাল বিমানের পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে কাজ করবে।

তবে ঠিক কয়টি বিমান কেনা হচ্ছে, তা বলতে রাজি হননি পাকিস্তানের সেনা মুখপাত্র।

২০১৫ সালে ৩৬টি ফরাসি যুদ্ধবিমান কেনা সম্পর্কিত ফ্রান্স-ভারতের চুক্তির ঘোষণা আসে। ভারতের প্রতিরক্ষা প্রতিমন্ত্রী অজয় ভাট গত জুলাইয়ের শেষ দিকে বলেন, ইতিমধ্যে ২৬টি বিমান সরবরাহ করা হয়েছে, বাকিগুলো ২০২১ সালের শেষ নাগাদ পাওয়া যাবে।

তবে পাকিস্তানের কাছে জেট বিক্রির বিষয়ে চীন এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও মন্তব্য করেনি।

পাকিস্তানি বিমানবাহিনীর বহরে একক ইঞ্জিনের জেএফ-সেভেনটিন যুদ্ধবিমানও রয়েছে, যা পাকিস্তান ও চীন যৌথভাবে তৈরি করেছে।

আরো খবর »